বিস্ফোরণের পর থমথমে এলাকা, দোষীদের শাস্তির দাবি পরিবারের

এনএফবি, পূর্ব মেদিনীপুরঃ

বিস্ফোরণের পর বৃহস্পতিবার গোটা এলাকা থমথমে রয়েছে।

প্রসঙ্গত, পাঁশকুড়ার সাধুয়াপোতা গ্রামে মঙ্গলবার শব্দবাজি বিস্ফোরণের কেঁপে উঠে ছিল এলাকা। এই ঘটনায় একজন মহিলা ও একজন কিশোরের মৃত্যু ঘটে। বিস্ফোরণ এলাকায় আশে পাশের প্রায় তিনটে বাড়ি লোকেরা এলাকা ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে।

মৃত যুবকের পরিবারের দাবি, এক মাস স্কুল ছুটি থাকার কারণে বাড়ির অজান্তেই কিছু অর্থের লোভ দেখিয়ে কাজে ডেকে ছিল শ্রীকান্ত ভক্তা। সকালে বাড়িতে ঘুমোচ্ছিল নবম শ্রেণীর ছাত্র শম্ভু (প্রদীপ) সামন্ত। বাড়িতে তখন কেউ ছিলনা। সাইকেলে করে বস্তা নিয়ে যাওয়ার জন্য ডাকে শ্রীকান্ত ভক্তার স্ত্রী স্বর্ণময়ী ভক্তা। এরপর বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায় ওই স্কুল ছাত্র। এলাকায় বিকট শব্দই কেঁপে উঠে। আমরা যখন ওই বাড়িতে যাই চারি দিকে রক্তের দাগ। আমরা তখন জিজ্ঞেস করি আমাদের ছেলে কোথায়। তখন ওই বাড়ির মালিক শ্রীকান্ত ভক্তা বলেন বাড়ি থেকে চলে গিয়েছে। পরে দেখি পুলিশ পুকুর থেকে মৃতকে পড়ুয়াকে উদ্ধার করে। আমাদের ধারণা যে আমাদের তরতাজা ছেলে বেঁচে ছিল প্রমাণ লোপাটের জন্য শ্রীকান্ত ভক্তা পুকুরে ফেলে দেয়। আমরা প্রশাসনকে বলবো এলাকায় প্রচুর বাড়িতে শব্দ বাজি তৈরি হয়। আমরা চাই আর কেউ যেনো এরকম সন্তান হারা না হয়। ইতিমধ্যেই গোটা ঘটনার তদন্ত অব্যাহত রেখেছে পুলিশ।

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।