খুনে অভিযুক্তকে গ্রেফতারে গড়িমসির অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে, উত্তেজনা

এনএফবি, পূর্ব মেদিনীপুরঃ

পুলিশকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভ এলাকাবাসীর। রবিবার রাত প্রায় ৮ টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটেছে পটাশপুর রাজ্য সড়কের উপরে খড়াই শ্যামসুবাড় এলাকায়। পটাশপুর থানার পুলিশের সঙ্গে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে স্থানীয় এলাকার বাসিন্দারা। পাশাপাশি পুলিশকে ঘিরে বেশ কিছুক্ষণ চলে বিক্ষোভ। সেই সঙ্গে পুলিশের গাড়িতে সজোরে ধাক্কাধাক্কি করে ক্ষুব্ধ স্থানীয়রা। এই ঘটনার জেরে রবিবার এলাকায় তুমুল উত্তেজনা দেখা দেয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ২৩ মার্চ খাটুয়াবাড় গ্রামে ধীরেন পাত্র (৫৫) নামের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। এরপর দিন অর্থাৎ ২৪ মার্চ বেলার দিকে মৃতের পরিবার-সহ বেশ কয়েক জন মিলে তাঁকে দাহ করে। কিন্তু গ্রামবাসীদের অভিযোগ, মৃত ব্যক্তিকে তাঁর পরিবারের লোকজন মিলে পিটিয়ে মেরে ফেলে। সোমবার বিকেলে খুনের অভিযোগ তুলে গ্রামবাসীরা অভিযুক্তদের ধরে এনে স্থানীয় গ্রামের এক মন্দির প্রাঙ্গণে বসিয়ে বেশ কয়েক ঘন্টা জিজ্ঞাসাবাদ করে। তবে অভিযুক্ত উত্তম পাত্র ( ৪০), তাঁর স্ত্রী সীতা পাত্র (৩০), এবং তাঁর মা সুমিত্রা পাত্রকে গ্রামবাসীরা দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করতে থাকে।

অবশেষে এ দিন সন্ধ্যা নাগাদ তিন অভিযুক্ত ব্যক্তি গ্রামবাসী ও সংবাদমাধ্যমের ক্যামেরার সামনে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধ করে খুন করেছে বলে কবুল করে। তবে কি কারণে খুন করল, তা কিন্তু কেউই স্পষ্ট ভাবে বলতে রাজি হয়নি। এই ঘটনার কথা ফোনে পটাশপুর থানার পুলিশকে বারংবার জানানো সত্বেও তাঁরা ঘটনাস্থলে দেরি করে পৌঁছায় বলে দাবি স্থানীয়দের। আর এই কারণেই পুলিশ ঘটনা স্থলে আসতেই ক্ষোভে ফেটে পড়ে স্থানীয় এলাকার বাসিন্দারা। পুলিশকে দেখেই ক্ষোভ উগরে দেন আমজনতা।

পুলিশ আসামীদের নিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশের গাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ দেখায় স্থানীয়রা। পাশাপাশি পুলিশের সামনেই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ তুলে মারধর করা হয়। ফলে ঘটনাস্থল থেকে তাদের গাড়িতে তুলতে কার্যত হিমসিম খেতে হয় পুলিশকে। আবার কেউ কেউ অভিযোগ করে বলেন, দিনের পর দিন রাস্তায় গাড়ি দাঁড় করিয়ে টাকা তুলতে ব্যস্ত পুলিশ। অথচ খবর দেওয়া সত্বেও খুনের আসামি তুলতে পুলিশ গড়িমসি করেছে। আগামী দিনে এই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটলে পুলিশের তোলাবাজির বিরুদ্ধে বৃহত্তর আন্দোলনে যাওয়ার হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন এলাকার বাসিন্দারা।

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।