করোনা গতিতে লাগাম পড়াতে কনটেনমেন্ট ঘোষণা ফিরহাদের

এনএফবি, কলকাতাঃ

অশ্বগতিতে ছুটছে কলকাতার দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। রবিবার কলকাতার দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৩ হাজারের বেশি। পূর্বেই কনটেনমেন্ট জোন গড়ে লাগাম পড়াতে নির্দেশ দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই নির্দেশ মেনে মেয়র ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছিলেন, কোনও এলাকায় বা আবাসনে ৫ জন করোনা আক্রান্ত হলেই তা কনটেনমেন্ট জোনের আওতায় পড়বে। এই হিসাবে মহানগরে ২৫টি মাইক্রো কনটেনমেন্ট চিহ্নিত হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে বেশ কয়েকটি কনটেনমেন্ট জোন। সোমবার সাংবাদিক সম্মেলনে এই পরিসংখ্যান দিলেন মেয়র নিজেই।

বর্তমানে পুরসভার বোরো ৭,৮,৯ ও ১০-এ সর্বাধিক মাইক্রো কনটেনমেন্ট রয়েছে। মঙ্গলবার থেকে কলকাতায় তিনটি সেফ হোম চালু হচ্ছে। এগুলি হল হরিকৃষ্ণ শেঠ লেন(৫০ শয্যা), প্রতিদিন হাউস (২০০ শয্যা) ও গীতাঞ্জলি স্টেডিয়াম (১০০ শয্যার)।

সংক্রমন রুখতে রাজ্য সরকারের জারি করা বিধিনিষেধ বাস্তবায়িত করার পাশাপাশি। কলকাতার জনবহুল অঞ্চল, বাজার এলাকায় দিনে কয়েকবার করে স্যানিটাইজ করা হবে। ১ লক্ষ মাস্ক বিলি করা হচ্ছে, আরও ৬ লক্ষ মাস্ক বিলি করা হবে। বাজারগুলিতে সচেতনতা প্রচার করা হবে। কোনও ক্রেতা বা বিক্রেতা মাস্ক না পরলে তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া কথা পুলিশকে জানানো হয়েছে। ফিরহাদের কথায়, বস্তি বা মধ্যবিত্তদের তুলনায় বড় আবাসন, ফ্ল্যাট এবং উচ্চবিত্তদের মধ্যে সংক্রমনের সংখ্যা বেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.