সংবিধানে স্পষ্ট লেখা আছে, প্রতিক্রিয়া কুনালের

এনএফবি, কোচবিহারঃ

প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে মোটামুটি সব শিবিরেই। তার মধ্যেই পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে বড় খবর। সম্ভবত আগামী বছর মার্চ-এপ্রিলে পঞ্চায়েত নির্বাচন হতে পারে, ইঙ্গিত রাজ্য নির্বাচন কমিশনের। রাজ্য পুলিশ দিয়েই পঞ্চায়েত ভোট, এমনই ইঙ্গিত কমিশন-প্রশাসন সূত্রে।

বিরোধীরা বারেবারে কেন্দ্রীয় বাহিনী দিয়ে ভোট করানোর দাবি জানালেও, এবারের পঞ্চায়েত ভোটও সম্ভবত রাজ্য পুলিশ দিয়েই হতে চলেছে, এমনই ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে কমিশন-প্রশাসন সূত্রে।

কেন্দ্রীয় বাহিনী ছাড়া বাংলায় কোনও ভোট হওয়া উচিত নয় বলে বারবার দাবি করে আসছে বিজেপি। কিন্তু পঞ্চায়েত নির্বাচনের জন্য রাজ্য পুলিশের উপরই আস্থা রাখছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। তা নিয়ে প্রশ্ন করলে দিলীপ বলেন, “কমিশন তো রাজ্য সরকার যা বলবে, তাই করবে। এর বাইরে অস্তিত্ব নেই ওদের। একতরফা ভোট করার চেষ্টা করবে। যদি একতরফা ভোট না করায় রাজ্য পুলিশ ছাড়া, রিগিং না করে ভোট হয় তাহলে তৃণমূল কোনও ভোট জিততে পারবে না। সেই চেষ্টাই তারা করছে।”

কোচবিহারে এসে দিলীপ ঘোষের এই মন্তব্যের প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ বলেন, সংবিধানে স্পষ্ট লেখা আছে, কোন ভোটটা কেন্দ্রীয় বাহিনী করবে, কোনটা রাজ্য পুলিশ করবে।”

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *