ওভারব্রিজ পরিদর্শন ঘিরে সাংসদ বিধায়ক বচসা

এনএফবি, মুর্শিদাবাদঃ

চুঁয়াপুর রেলওয়ে ওভারব্রিজ পরিদর্শনে গেলেন সাংসদ অধীর চৌধুরী ও বিধায়ক কাঞ্চন মৈত্র। মঙ্গলবার বহরমপুর কোর্ট স্টেশনে আসেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। এখানে এসে রেলের জিআরএম-কে সঙ্গে নিয়ে সদ্য নির্মিত রেলওয়ে ওভারব্রিজ পরিদর্শন করেন। এ দিন অধীর বাবু জানান, তিনি রেল মন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে এই ওভারব্রিজ পরিদর্শনে এসেছেন। ওভার ব্রিজ পরিদর্শন শেষে তিনি জিআরএম-কে জানান ইমারজেন্সি ব্রিজে ওঠা নামার জন্য দুইপাশে দুটো সিঁড়ির প্রয়োজন। এছাড়াও রেলের তরফ থেকে ব্রিজে হাইমাস লাইট লাগানোর অনুরোধ করেছেন। অন্যদিকে বিজেপি বিধায়ক কাঞ্চন মৈত্র তিনিও একই সময়ে রেলওয়ে ওভারব্রিজ পরিদর্শনে আসেন। অধীর বাবুর সঙ্গে যখন বিজেপি বিধায়ক কাঞ্চন মৈত্র ব্রিজ পরিদর্শনে আসছিলেন তখন অধীর বাবু তীব্র আপত্তি জানান। এবং বিজেপি বিধায়ককে আগে অথবা পরে আসার কথা বলেন। যদিও বিজেপি বিধায়ক সে কথায় কোনও কর্ণপাত না করে অধীর চৌধুরী সঙ্গেই ব্রিজ পরিদর্শন করেন। শেষে দুই পক্ষই স্লোগান দেয়।

এদিন কাঞ্চন মৈত্র জানিয়েছেন, আমি এখানে এসেছি রেল ব্রিজ পরিদর্শনে এবং সাধারণ মানুষের জন্য রেলের কাছে কিছু দাবি জানাতে। রেলের তরফ থেকে আমাকে আসতে বলা হয়েছে। এতে অধীর চৌধুরীর গাত্রদাহ হয়েছে। আর ইগো থাকার জন্যই আগামী দিন ওনাকে( অধীর চৌধুরী)-কে ভুগতে হবে।

এ দিন, অধীর বাবু আরও জানিয়েছেন, ২০১৩-১৪ সালে তিনি রেলর প্রতিমন্ত্রী থাকাকালীন চুঁয়াপুর ও পঞ্চাননতলা রেলওয়ে ওভারব্রিজ এবং বেলডাঙ্গা রেলওয়ে আন্ডার পাশের জন্য ব্যবস্থা করেন। তারপর তার নির্দেশে ওভারব্রিজের কাজ শুরু হলে রাজ্য সরকারের নো অবজেকশন সার্টিফিকেট (NOC) না দেওয়ার কারণে এই কাজ থমকে যায়। যে কাজ চোদ্দ মাসে হয়ে যাওয়ার কথা ছিল এই কাজ হতে নয় বছর লাগলো। পঞ্চাননতলা এবং বেলডাঙার কাজও দ্রুত শুরু হবে।

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।