মোরবি সেতু বিপর্যয়ে বাড়ল মৃতের সংখ্যা, গাফিলতির অভিযোগে গ্রেফতার ৯

নিউজ ডেস্ক, আমেদাবাদঃ

গুজরাটের মোরবিতে কেবল ব্রিজ ভেঙে পড়ায় মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়ল। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত ১৪১ জনের মৃত্যু নিশ্চিত করা হয়েছে। প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, ১৭৭ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার কাজ প্রায় শেষের দিকে।

প্রসঙ্গত, রবিবার সন্ধ্যায় গুজরাতের মাচ্চু নদীতে হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে কেবল সেতু। মোরবি জেলায় মর্মান্তিক এই দূর্ঘটনায় নদীর জলই হয়ে ওঠে ধ্বংসস্তূপ। স্থানীয়রাই প্রথমে উদ্ধার কাজ শুরু করে। তারপর পুলিশ ও বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছায়।

উদ্ধার কাজ। ছবিঃ দি হিন্দু

ভোটের মুখে এই দুর্ঘটনার দায় স্বীকার করেছে রাজ্য সরকার। মৃতদের পরিজনদের ৪ লক্ষ টাকা ও জখমদের ৫০ হাজার টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে গুজরাট সরকার। সোমবার সরকারের পক্ষ থেকে ব্রিজটির রক্ষাবেক্ষণের দায়িত্বে থাকা সংস্থা গুলির বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। সংবাদ সূত্রে জানা গেছে, গাফিলতির অভিযোগে এখন পর্যন্ত ৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এ দিন রাষ্ট্রীয় একতা দিবসের অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে এ বিপর্যয়ের ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি বলেন, “সাম্প্রতিককালে এর থেকে বেশি শোক আমি আর কিছুতেই পাইনি। আমি এখানে আছি বটে কিন্তু আমার মন পড়ে আছে মোরবির দূর্ঘটনাস্থলে।”

দুর্ঘটনা স্থল। ছবিঃ দি হিন্দু

অন্যদিকে জানা গেছে এই দূর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছে বাংলার এক যুবক। মৃত যুবকের নাম হাবিবুল শেখ, তিনি পূর্বস্থলীর মুশকিমপাড়ার বাসিন্দা।
সোনা রূপার কাজ শিখতে হাবিবুল গুজরাটে গিয়েছিলেন।

এই দূর্ঘটনায় গুজরাট সরকার ও প্রশাসনের গাফিলতি ছিল না একথা মানতে নারাজ বিরোধীরা। তাদের দাবি, নির্বাচনের কারণেই সরকারের তরফে ব্রিজটির সঠিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা না করে ফের জনসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হয়।

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *