দলে ভারসাম্য ফেরাতে হবে: হাবাস

অঞ্জন চ্যাটার্জী, এনএফবিঃ

শুরুর দিকে ভাল খেললেও গত দুই ম্যাচে টানা হারতে হয়েছে তাঁর দলকে। তাতেও খুব একটা বিচলিত বলে মনে হল না এটিকে মোহনবাগানের স্প্যানিশ কোচ আন্তোনিও লোপেজ হাবাস-কে। রক্ষণের সমস্যা, বা হুগো বুমৌস-রয় কৃষ্ণা জুটির ক্রমশ নিষ্প্রভ হয়ে পড়া নিয়ে তাঁকে খুব একটা চিন্তিত বলে মনে হল না শুক্রবারের সাংবাদিক বৈঠকে। লিগের সবচেয়ে সফল ও পোড় খাওয়া কোচ মনে করছেন, সাফল্যের দিন ফিরে আসবে। দলের খেলায় সঠিক ভারসাম্য ফিরিয়ে আনাই এখন তাঁর কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে কী বললেন তিনি? জেনে নেওয়া যাক,

রয় কৃষ্ণা, হুগো বুমৌস ও জনি কাউকোর মতো অ্যাটাকার থাকতেও গোল পেতে সমস্যা হচ্ছে আপনার দলের। এটা মনস্তাত্বিক, না টেকনিক্যাল সমস্যা?

উত্তরঃ দলের ভারসাম্যই আমার কাছে আসল কথা। প্রথম দুই ম্যাচে আমরা সেরা দল ছিলাম। কারণ, সেই দুই ম্যাচে সাত গোল করেছিলাম আমরা। কিন্তু এখন আমরা গোল করতে পারছি না। ম্যাচে এবং আমাদের খেলায় ভারসাম্যই হচ্ছে আসল কথা। এটা হারিয়ে গেলে একটা সেরা দল দশ দিনের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ দলে পরিণত হতে পারে। আমাদের সেই ভারসাম্যই ফিরিয়ে আনতে হবে।

এসসি ইস্টবেঙ্গল যেখানে চেন্নাইন এফসি-র বিরুদ্ধে গোলশূন্য ড্র করেছে, সেখানে আপনারা কি ওদের হারাতে পারবেন?

উত্তরঃ দু’টো ম্যাচ কখনও একই রকম হতে পারে না। এসসি ইস্টবেঙ্গল এক দল আর আমরা অন্য দল। চেন্নাইনের বিরুদ্ধে আমরা যখন মাঠে নামব, তখন সেটা সম্পূর্ণ আলাদা একটা ম্যাচ।

পরপর দু’টি ম্যাচে হারের পর কি আপনার মনে হয় রক্ষণ বিভাগকে আরও শক্তিশালী করে তোলা উচিত?

উত্তরঃ আমাদের দলে সঠিক ভারসাম্য আনতে হবে। আমরা ৪৫ মিনিট ঠিকমতো খেলছি, অথচ পরের ৪৫ মিনিট ঠিক খেলতে পারছি না। আমাদের সব রকম পরিস্থিতি বুঝতে হবে, (গোল খেলে) গোল শোধ করতে হবে।

পরপর দু’টো ম্যাচে হারার পরে ছেলেদের কী বলেছেন?

উত্তরঃ দলের ছেলেদের আত্মবিশ্বাস বাড়াতে হবে। আমার কাছে আমার দলের ফুটবলাররাই সেরা, সম্ভবত বিশ্বের সেরা। ওদের এখনও দীর্ঘ সময় ফুটবল খেলতে হবে। তাই ওদের আত্মবিশ্বাস জোগাতে হবে। প্রতিকূল পরিস্থিতির সঙ্গে লড়াই করতে হবে ওদের। দু’বছর ধরে যেমন আমাদের বায়ো বাবলে থেকে লিগ খেলতে হচ্ছে। তার আগে দীর্ঘ কোয়ারেন্টাইন পর্ব কাটাতে হয়েছে। পেশাদার ফুটবলারদের কাছে খুবই কঠিন পরিস্থিতি। এ সবের মধ্যেও নিজেদের সেরা ভাবতে হবে ও প্রমাণও করতে হবে এবং সেটাও এই লিগেই।

তিরির চোট নিয়ে কী আপডেট রয়েছে, যদি বলেন।

উত্তরঃ ওর কোনও চোট এখন আর নেই।

ডার্বির পরে আর হুগো বুমৌস-রয় কৃষ্ণার মধ্যে সেই বোঝাপড়া দেখা যাচ্ছে না। আগামী ম্যাচে ওদের একটু পিছন থেকে খেলিয়ে ডেভিড উইলিয়ামসকে কি শুরু থেকে খেলানোর কথা ভাবছেন?

উত্তরঃ এই নিয়ে পঞ্চম ম্যাচ খেলব আমরা। গত ম্যাচের পাঁচ দিন পরে ফের মাঠে নামছি আমরা। আমি চাই আমার দলের প্রত্যেক খেলোয়াড়ই তৈরি থাকুক। কারও যদি টানা চারটি ম্যাচ খেলার পরে বিশ্রামের প্রয়োজন হয়, তা হলে তাকে তা দিতে হবে। এই দল নিয়েই তো আমাদের পুরো লিগটা খেলতে হবে।

গত দুই ম্যাচে আপনার রক্ষণের পারফরম্যান্সে কি আপনি উদ্বিগ্ন?

উত্তরঃ শুধু রক্ষণের পারফরম্যান্স নিয়ে আমি ভাবি না, পুরো দল নিয়েই ভাবতে হয়। আমাদের রক্ষণ ও আক্রমণের মধ্যে ওঠা-নামা ঠিকমতো হচ্ছে না। পুরো ম্যাচে আমাদের নিখুঁত ভাবে খেলতে হবে। ৪৫ মিনিট বা ১০ থেকে ৩০ মিনিট ভাল খেললে চলবে না। পুরো ৯০ মিনিটই ভাল খেলতে হবে।

সন্দেশ ঝিঙ্গন চলে যাওয়ার পরে কোনও নতুন ডিফেন্ডারকে আনা হয়নি। এ বার তিরিরও চোট। সে জন্যই কি রক্ষণ দুর্বল হয়ে পড়েছে?

উত্তরঃ ফুটবলে এ ভাবে তুলনা করাটা ঠিক নয়। বিশেষ করে যে এখানে নেই, তার সঙ্গে। এখানে যে খেলোয়াড়রা আছে, তাদের নিয়েই আমি বেশি ভাবনা-চিন্তা করি।

টানা জোড়া ম্যাচে হারার পরে ঘুরে দাঁড়ানোর ব্যাপারে আপনি কতটা আত্মবিশ্বাসী?

উত্তরঃ একশো শতাংশ আত্মবিশ্বাসী। প্রথম দু’টো ম্যাচে তো আমরা খারাপ খেলিনি। পরের দু’টি ম্যাচে আমরা জিততে পারিনি ঠিকই। তবে হয়তো এ বার আমাদের জন্য ভাল কিছু অপেক্ষা করে আছে। এটা আমার জায়গা, দলের ভালর জন্য আমিও চিন্তা করি।

চেন্নাইন এফসি-র শক্তি সম্পর্কে আপনার কী ধারণা?

উত্তরঃ চেন্নাইন যথেষ্ট লড়াকু দল। ওদের ভাল ভাল বিদেশি ফুটবলার আছে। ওরা শরীরি ফুটবল খেলে। আমাদের পক্ষে ম্যাচটা কঠিন হবে। কারণ, চেন্নাইন এখনও বেশি গোল খায়নি। ভাল লড়াই হবে মনে হচ্ছে।

গত মরশুমে রয় কৃষ্ণা চেন্নাইনের বিরুদ্ধে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দেখিয়েছিলেন

উত্তরঃ গত মরশুমের কথা গত মরশুমেই শেষ হয়ে গিয়েছে। এখন নতুন মরশুম শুরু হয়ে গিয়েছে। তাই এই মরশুমের কথাই ভাল।

আপনার দলে কয়েকজন ভাল উইঙ্গার আছেন। অথচ আপনাদের খেলায় সে ভাবে উইং প্লে দেখা যাচ্ছে না। কারণ কী?

উত্তরঃ এটা আপনার ধারণা, আমার নয়। যখন প্রয়োজন পড়বে, যখন ভাল মনে করব, তখন দুই উইংয়ে যাকে প্রয়োজন, তাকেই রাখব। বিপক্ষ রাইট ব্যাক ও লেফট ব্যাক খেলালে আমাদের সেই মতোই দল সাজাতে হবে, প্রয়োজন অনুযায়ীই খেলোয়াড় বাছব। সুতরাং এই নিয়ে আমার কোনও সমস্যা নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.