মেনে নিতে পারছে না বহরমপুরে প্রতিবেশীরা

এনএফবি, মুর্শিদাবাদঃ

ঐন্দ্রিলার অকাল মৃত্যুতে শোকাহত পরিবার-পরিজন এবং আত্মীয়-স্বজন ও প্রতিবেশীরা। ঐন্দ্রিলার বাড়ি বহরমপুর থানার ইন্দ্রপ্রস্থ সাউথ এলাকায়। বাবা উত্তম শর্মা ও মা শিখা শর্মা। বাবা উত্তম শর্মা পেশায় চিকিৎসক। মা শিখা শর্মা পেশায় সিনিয়র নার্সের কর্মরত। ঐন্দ্রিলার ডাকনাম ছিল মিষ্টি। দুই বোন ঐন্দ্রিলা আর ঐশ্বর্য। ঐশ্বর্য এর ডাকনাম মিতু।

প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন ঐন্দ্রিলা খুব মিষ্টি ভাষী ও মিশুকে ছিলেন। এই বছর দুর্গা পুজোর সময় ঐন্দ্রিলা বাড়িতে এসেছিল। সেই সময়ও প্রতিবেশীদের সঙ্গে এসে দেখা করা এবং কথা বলা সমস্ত কিছুই করেছেন। দুই দুইবার ক্যান্সার আক্রান্ত হওয়ার পরেও ছোট্ট মেয়েটি বাঁচার চেষ্টা করছিল কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে। টানা কুড়ি দিন লড়াইয়ের পর শেষ পর্যন্ত তাকে হারতে হলো রবিবার দুপুরে।

তাঁর মৃত্যুর সংবাদ শুনেই প্রতিবেশীরা শোকাহত। স্থানীয়রা প্রত্যেকেই জানিয়েছেন ঐন্দ্রিলা খুব ভালো মেয়ে ছিল। এইভাবে চলে যাওয়াকে মেনে নিতে পারছে না প্রতিবেশীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *