বাড়েনি বেতন, বোনাস থেকেও বঞ্চিত- উৎসবের দিনেই বিক্ষোভ অস্থায়ী বনকর্মীদের

এনএফবি, আলিপুরদুয়ারঃ

উৎসবের দিনেই পেশাগত দাবিতে পথে নামলো অস্থায়ী বনকর্মীরা। বড়দিনের দিন আন্দোলনে জলদাপাড়া জাতীয় উদ‍্যানের মাহুত, পাতাওয়ালা ও অস্থায়ী বনকর্মীরা। যারা জঙ্গল রক্ষা করে, হাতির মুখে খাবার তুলে দেয় পাশাপাশি হাতির দেখভাল করে। বন দফতরের সেই সমস্ত অস্থায়ী কর্মীরা নিজেদের ভবিষৎ এক প্রকার অন্ধকার দেখছেন তারা।

দীর্ঘদিন ধরে এই কাজে নিয়োজিত থাকলেও তাদের বেতন বাড়েনি এক টাকাও, এমনকি এ বছর পুজোর বোনাস থেকেও বঞ্চিত হয়েছেন অনেকেই। নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যে সমস্ত অস্থায়ী বন কর্মীরা দিনরাত জঙ্গলে কাজ করে তাদের অবস্থা আজ সঙ্গীন।

তাই অস্থায়ী বনকর্মী, মাহুত, পাতাওয়ালাদের স্থায়ীকরণের দাবি, অস্থায়ী কর্মীদের বেতন বৃদ্ধি, বকেয়া বোনাস প্রদানের দাবি-সহ একাধিক দাবিতে রবিবার বড় দিনের দিন জলদাপাড়া সহকারী বন‍্যপ্রাণ আধিকারিকের কার্যালয়ে সামনে অবস্থান বিক্ষোভে সামিল হল তারা। তাদের তিন দিনের এই আন্দোলনের আজ প্রথম দিন।

বিক্ষোভকারীরা জানান, আমরা কেউ দীর্ঘ প্রায় আট বছর কেউ দশ বছর যাবৎ ধরে কাজ করছি, কিন্তু আমাদের বেতন মাত্র সাত হাজার টাকা। এই মূল‍্যবৃদ্ধির যুগে সামান্য বেতন দিয়ে আমরা সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছি। তাই নিজেদের স্থায়ীকরণ-সহ বাকি দাবি নিয়ে তাদের আন্দোলন। এমনকি দু’মাস আগে আন্দোলনে যোগ দেওয়ায় এক মহিলা অস্থায়ী কর্মীকে কাজ থেকে বসিয়েও দেওয়া হয়েছে। তাই তারা হুঁশিয়ারি দিয়েছেন যে, যদি বনদফতর তাদের সমস্ত দাবি না মানে তাহলে তারা সকলে অনির্দিষ্ট কালের ধর্মঘটে সামিল হবেন। ২৭ তারিখের পর জালদাপাড়ায় জঙ্গল সাফারিও তারা বন্ধ করে দেবার হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন।

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।