গড়িয়ায় লর্ডসের ব্যালকনিতে সৌরভ

অঞ্জন চ্যাটার্জী, এনএফবিঃ

এবারে গড়িয়ার নবদুর্গা ক্লাবের পুজোর থিম ২০০২ সালের লর্ডসের ব্যালকনি।কারণ এবার ভারতের ন্যাটওয়েস্ট ট্রফি(NatWest Trophy) জয়ের কুড়ি বছর পূর্তি। সিএবি’ র কর্মকর্তা আয়োজিত সেই পুজোর উদ্বোধনে মঙ্গলবার হাজির ছিলেন স্বয়ং সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। লর্ডসের ব্যালকনির আদলে পুজো প্যান্ডেলে ঢুকে হাত নাড়ালেন মহারাজ। ভারতের জাতীয় পতাকা হাতে নিলেন লর্ডসের আদলে তৈরী ব্যালকনিতে দাঁড়িয়ে জানালেন, ভালো লাগছে এতো মানুষ ভালোবাসে আমাকে। সেটা দেখে। সবাই পুজোয় আনন্দ করুন। সবার পুজো ভালো কাটুক আনন্দে কাটুক।

২০০২ সালে ন্যাটওয়েস্ট ট্রফির ফাইনালে ইংল্যান্ডের দেওয়া ৩২৬ রানের টার্গেট তাড়া করতে নামে ভারত। বীরেন্দ্র সেহওয়াগ ও সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ওপেনিং জুটি তোলে ১০৬ রান। তবে সেহওবাগ আর সৌরভ আউট হয়ে গেলে দীনেশ মোঙ্গিয়া, সচিন তেন্ডুলকার, রাহুল দ্রাবিড়ের উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে ভারত। ১৪৬ রানের বিনিময়ে ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলে টিম ইন্ডিয়া।
তখন ত্রাতার ভূমিকায় হাল ধরেন যুবরাজ সিং ও মহম্মদ কাইফের জুটি। তারা ভারতকে এগিয়ে নিয়ে যান জয়ের দিকে। ১২১ রানের পার্টনারশিপ করেন কাইফ-যুবি। শেষ পর্যন্ত ৮৭ রানে অপরাজিত থেকে জাহির খানকে সঙ্গে নিয়ে ভারতকে ম্যাচ জেতান মহম্মদ কাইফ। সেই ম্যাচে ভারতের জয়ের পর জামা খুলে লর্ডসের ব্যালকনি থেকে উদযাপন করেন মহারাজ।

২০০২ সালের মুম্বইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে ভারত-ইংল্যান্ড ওয়ান ডে ম্যাচে ভারতকে অলআউট করে ৫ রানে ম্যাচ জিতেছিল ইংলিশ ব্রিগেড। জয়ের পর অ্যান্ড্রু ফ্লিনটফ জার্সি খুলে উড়িয়ে মাঠে সেলিব্রেশন করেছিলেন। সেই ঘটনার বদলাই তাঁদের ঘরের মাঠে গিয়ে নেন সৌরভ। যা সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের কেরিয়ারের সঙ্গে আষ্টেপিষ্টে জড়িয়ে গেছে।

আবার এমনই এক দূর্গা পুজোর দিনে সৌরভ ভক্তদের কাছে শোকের বার্তা নিয়ে আসে ২০০৮ সালে। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজের ঠিক আগেই অষ্টমীর দিন অবসর ঘোষণা করেন প্রিন্স অফ কলকাতা।

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।