দল এবার লড়াই করবে কেরালা ম্যাচে নামার আগে বলছেন স্টিফেন

স্পোর্টস ডেস্ক, এনএফবিঃ

আইএসএলে ইস্টবেঙ্গলের ইতিহাস খুব একটা ভালো নয়। গত দুই মরসুমে দু’বারই ভরাডুবি হয়েছে লাল হলুদ ব্রিগেডের। গতবার লিগ তালিকার একেবারে নীচে থাকার পরে এই মরসুমে তাদের ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই এবং এই লড়াইে তাদের পথ দেখানোর জন্য এসেছেন ভারতীয় দলের প্রাক্তন ব্রিটিশ কোচ স্টিফেন কনস্টান্টাইন। কোচিতে কেরালা ব্লাস্টার্সের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচে নামার আগেই সাংবাদিক বৈঠকে তিনি জানিয়ে দিলেন, তাঁর দল এবার হারতে বা লিগ টেবলের নীচে থাকতে আসেনি, লড়াই করতে এসেছে। শুক্রবার কেরালা ব্লাস্টার্স দলের বিরুদ্ধে আইএসএলের উদ্বোধনী ম্যাচে নামার আগে স্টিফেন জানাচ্ছেন, ভারতীয় খেলোয়াড়দের ভাবনা, উপলব্ধি এগুলো খুব ভাল ভাবে জানি আমি। এটা অবশ্যই হয়তো আমাকে সুবিধা জোগাবে। তবে অতীত, অতীতই। গত দু’বার যা হয়েছে, তা আমার হাতে ছিল না। পরের মরসুমে কী হতে পারে, তা কিছুটা আমার হাতে রয়েছে। সবাই খুব পরিশ্রম করেছে। কম সময়ের জন্যই আমরা একসঙ্গে ছিলাম। ছ’সপ্তাহ আগে আমার হাতে মাত্র ১২ জন ছিল। এখন আমার স্কোয়াডে ২৬ জন আছে। তারা সবাই যথেষ্ট পরিশ্রম করেছে। তার ফল কী হতে পারে, তার একটা আন্দাজ পাওয়া যাবে কালকের ম্যাচে। এখনও আমরা পুরোপুরি তৈরি নই ঠিকই। তবে এটুকু নিশ্চিত ভাবে বলতে পারি। আমরা কেরালা ম্যাচে হারার জন্য নামবো না বা এই লিগে আমরা একেবারে নীচে থাকার জন্য খেলছি না।’

সিলভা, ইভান, লিমামতো বিদেশীদের নিয়ে স্বপ্ন দেখছে লাল হলুদ সমর্থকেরা। স্টিফেন জানালেন, এই তিন বিদেশিই আমার দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। এই তিন জন ভারতীয় ফুটবলের সঙ্গে অত্যন্ত পরিচিত। বাকিদের মানিয়ে নিতে একটু সময় লেগেছে। বিদেশিরাই তো আইএসএলের মঞ্চে তফাৎ গড়ে দেয়।

সমর্থকদের উদ্দেশ্য ব্রিটিশ কোচের বার্তা, সমর্থকেরা আমাদের কাছে অপরিহার্য্য। ওদের ছাড়া আমাদের চলবে না। এ পর্যন্ত সমর্থকদের কাছ থেকে যে সমর্থন পেয়েছি, তা অভাবনীয়। এ বারেও আশা করি তার অন্যথা হবে না। জানি না কাল কতজন মাঠে আসবেন। আমি নিশ্চিত গ্যালারিতে লাল-হলুদ সমর্থকদের দেখতে পাব।’
আইএসএলে লাল হলুদ শিবিরের নেতৃত্ব সামলাবেন পাঁচ ক্যাপ্টেন। গোলকিপার কমলজিৎ সিং, ডিফেন্ডার ইভান গঞ্জালেজ, মিডফিল্ডার সৌভিক চক্রবর্তী, সুমিত পাসসি এবং ফরোয়ার্ড ক্লেইটন সিলভা আসন্ন মরসুমে ইস্টবেঙ্গলের দায়িত্ব পালন করবেন।

দলের অন্যতম অধিনায়ক সৌভিক এদিন জানালেন, “ইস্টবেঙ্গলের নামটাই বড় ব্যাপার। আমি কলকাতার ছেলে বলে ইস্টবেঙ্গলকেই বেছে নিই। ছেলেবেলা থেকেই এই ক্লাবের জন্য খেলতে চাইতাম। আমরা দল হিসেবে উন্নতি করার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করব। সমর্থকদের জন্য তো বটেই, নিজেদের জন্যও এটা করতে হবে আমাদের।আমাদের দল লিগের অন্যতম শক্তিশালী দল। আমি খাতায় কলমের শক্তির কথা বলছি না। আমরা খুব ভাল মতো একে অপরের সঙ্গে অনুশীলন করেছি। ছ’সপ্তাহ ধরে একসঙ্গে অনুশীলন করছি। আমাদের বেশির ভাগ ছেলেই খুব প্রতিভাবান। জোর দিয়ে বলতে পারি আমরা এ বছর ভালো ফুটবল খেলব।”

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।