ভিয়েতনামে জয়ের খাতা খুলতে ব্যর্থ সুনীলরা

অঞ্জন চ্যাটার্জী, এনএফবিঃ

হল না। ভারতীয় ফুটবল দল এশিয়া কাপের আগে যেন জিততেই ভুলে গেছে। গত সিঙ্গাপুর ম্যাচের পর ভিয়েতনামে দ্বিতীয় ম্যাচেও জিততে পারল না ভারত। মঙ্গলবার হো চি মিন সিটির থং নহাত স্টেডিয়ামে ত্রিদেশীয় হাং থিন টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় ম্যাচে ভিয়েতনাম তাদের হারাল ৩-০ গোলে। ভারতীয় দলের অভিজ্ঞ গোলকিপার গুরপ্রীত সিং সান্ধু এ দিন তাঁর অসাধারণ দক্ষতা না দেখালে ভারত হয়তো ছ’গোলেরও বেশি ব্যবধানে হারত। এই জয়ের সঙ্গে টুর্নামেন্ট চ্যাম্পিয়ন হল ফিফা ক্রমতালিকায় ৯৭ নম্বরে থাকা ভিয়েতনাম।

সিঙ্গাপুরের বিরুদ্ধে গত ম্যাচে ১-১ ড্র করার পরে আশা করা হয়েছিল, প্রথম ম্যাচের ভুলভ্রান্তি শুধরে নিয়ে ভারত হয়তো ভিয়েতনামের বিরুদ্ধে লড়াই করবে। কিন্তু সুনীল ছেত্রীদের পারফরম্যান্সে তেমন লড়াইয়ের প্রবণতা দেখা যায়নি। ১০, ৪৯ ও ৭১ মিনিটের মাথায় গোল করে দলকে জেতান ফ্যান ভান ডুক, ভ্যান তোয়ান ও ভ্যান কুয়েত।

গত ম্যাচের দলে তিনটি পরিবর্তন করে এ দিন প্রথম এগারো নামান ভারতের কোচ ইগর স্টিমাচ। নরেন্দর, রোশন ও কোলাসোকে বাইরে রেখে সন্দেশ ঝিঙ্গন, চিঙলেনসানা সিং ও উদান্ত সিংকে প্রথম দলে আনেন তিনি। তবে তাঁরা দলকে সাফল্যের রাস্তায় ফেরাতে পারেননি। ভারত শুরুতে প্রতিপক্ষকে চাপে রাখার চেষ্টা করলেও তাদের কিছুক্ষণ দেখে নিয়ে পাল্টা আক্রমণে উঠতে শুরু করে ভিয়েতনাম। ম্যাচের আগের দিন ভিয়েতনামের বিষাক্ত দূরপাল্লার শট নিয়ে যে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন স্টিমাচ, সেই অভিজ্ঞতা ম্যাচের দশ মিনিটের মধ্যেই হয় তাঁর দলের ফুটবলারদের। যখন হো তান তাই প্রায় ৩৫ গজ দূর থেকে এক জোরালো ও নিখুঁত গোলমুখী শট নেন। ভারতীয় গোলকিপার গুরপ্রীত সিং সান্ধু ডানদিকে ড্রাইভ দিয়ে সে যাত্রা দলকে বাঁচান। ম্যাচের বয়স ৬০ মিনিট হওয়ার আগেই ভিয়েতনামের কোচ পার্ক হাং সিও আরও দুই পরিবর্ত খেলোয়াড়কে মাঠে নামিয়ে দেন। স্টিমাচের রিজার্ভ বেঞ্চ থেকে একসঙ্গে তিনজন নামেন ৬৪ মিনিটের মাথায়। রক্ষণে নির্ভরযোগ্য হয়ে ওঠা চিঙলেনসানার জায়গায় নামেন রোশন নাওরেম। উদান্তর জায়গায় নামেন লিস্টন কোলাসো এবং সুনীল ছেত্রীও জায়গা করে দেন ব্র্যান্ডন ফার্নান্ডেজকে।

আক্রমণ ও রক্ষণ-দুই বিভাগকেই কিছুটা তরতাজা করে তোলার জন্য এই পরিবর্তনগুলি করেন ভারতের কোচ।

ভারতীয় দল: গুরপ্রীত সিং (গোল), আনোয়ার আলি, সন্দেশ ঝিঙ্গন, চিঙলেনসানা সিং (রোশন নাওরেম), আকাশ মিশ্র, অনিরুদ্ধ থাপা, জিকসন সিং, আশিক কুরুনিয়ান (ইশান পন্ডিতা), উদান্ত সিং (লিস্টন কোলাসো), সাহাল আব্দুল সামাদ (রাহুল কেপি, লালিনজুয়ালা ছাঙতে), সুনীল ছেত্রী (অধি) (ব্র্যান্ডন ফার্নান্ডেজ)।

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।