বিশ্বব্যাপী ঐতিহ্যবাহী জনসন বেবি পাউডার বন্ধ করার সিদ্ধান্ত

এনএফবি, ওয়েব ডেস্কঃ

সমগ্র দেশের পাশাপাশি গোটা বিশ্বেও একসময় ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছিল জনসন অ্যান্ড জনসন বেবি পাউডার। টানা বিতর্কের মাঝে পড়ে এই পাউডারকে বাজার থেকে সরিয়ে নিচ্ছে johnson and johnson কোম্পানি। বৃহস্পতিবার এই প্রসঙ্গে নিজেদের বক্তব্য স্পষ্ট করে দিয়েছে এই কোম্পানি।

কোম্পানির তরফে জানানো হয়েছে, ইতিমধ্যেই দেশের বিভিন্ন শহরে এই পাউডার বিক্রি হলেও, আর তা বিক্রি করা হবে না। কোম্পানির পোর্টফোলিও থেকে এই প্রোডাক্টটিকে সরিয়ে ফেলা হবে বলে জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য ২০২০ সাল থেকেই এই পাউডার বিক্রি বন্ধ হয়ে গিয়েছিল আমেরিকা এবং কানাডায় । ক্যান্সার সংক্রান্ত বিতর্কের মুখে পড়েছিল এই কোম্পানি। এমনকি কোম্পানির বিরুদ্ধে মামলাও দায়ের করা হয়েছিল । অভিযোগ ওঠে, এই পাউডারের মধ্যে মিলেছে ক্ষতিকর অ্যাসবেস্টস। যা ক্যান্সারের কারণ বলে দাবি করা হয়। প্রায় ৩৫ হাজার মহিলা আমেরিকায় এই কোম্পানির বিরদ্ধে মামলা দায়ের করে। ব্যাপারটি ক্রমশ ছড়িয়ে পড়ায় আমেরিকায় এই কোম্পানির ব্যবসা বড়সড় ক্ষতির মুখে পড়েছে। এরপরেই ২০২০ সালে আমেরিকা ও কানাডায় এই পাউডার বিক্রি বন্ধ করে দেয় কোম্পানি। তবে এরপরেও ব্রিটেন ও বিশ্বের অন্য দেশে বিক্রি হচ্ছিল এই পাউডার ৷

জানা গেছে ,আমেরিকায় অভিযোগের ভিত্তিতেই আদালত ১৫,০০০ কোটি টাকার জরিমানা চাপায় এই সংস্থার উপরে। আদালত নিজেদের পর্যবেক্ষণে জানিয়েছিল, সংস্থাটি শিশুদের স্বাস্থ্য নিয়ে রীতিমতো খেলা করেছে। বিচারক জানিয়েছিলেন, কোম্পানিটি যা ক্ষতি করেছে, তার সঙ্গে অর্থের কোনও তুলনা হয় না। কিন্তু এতবড় অপরাধের জন্য ক্ষতিপূরণের পরিমাণও বেশি হওয়া উচিত।

জনসন বেবি পাউডার অনেক দিন আগে থেকেই একটা ঐতিহ্যের নাম । ভারতেও এই পাউডারটিই ব্র্যান্ডের অন্যতম প্রতীক হয়ে উঠেছিল। তবে গত দু’বছর আগে থেকে আমেরিকায় বিক্রি বন্ধ করেছে কোম্পানি। এবার ভারত-সহ গোটা বিশ্বেই বন্ধ হচ্ছে এই পাউডারের বিক্রি।

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.