প্রতিরক্ষা দফতরের উচ্ছেদ নোটিশ ঘুম উড়েছে স্থানীয়দের

এনএফবি, পশ্চিম মেদিনীপুরঃ

প্রতিরক্ষা দপ্তরের নোটিশ পেয়ে রাতের ঘুম উড়েছে স্থানীয় বাসিন্দাদের। ঘটনাটি ঘটেছে শালবনি ব্লকের ৪নং বাকিবাঁধ গ্রাম পঞ্চায়েতে।

জানা গিয়েছে, বাইশটি মৌজায় প্রায় চার হাজার পরিবারকে উচ্ছেদের নোটিশ দেওয়া হয়েছে। পাঁচ পুরুষ ধরে বসবাস করে আসা বাসিন্দাদের এই উচ্ছেদে নোটিশে রাতের ঘুম উড়েছে।

শালবনির বাকিবাঁধ অঞ্চলের বাইশটি মৌজার প্রায় চার হাজার পরিবারের। এই এলাকা জুড়ে রয়েছে তিনটি আইসিডিএস কেন্দ্র, দুটি শিশু শিক্ষা কেন্দ্র ও একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এরফলে অনিশ্চিত এই সমস্থ স্কুলগুলির ভবিষ্যৎ, যদিও স্কুলগুলিকে প্রতিরক্ষা দফতরের তরফে কোনও নোটিস পাঠানো হয়নি।

কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের পক্ষ থেকে পরিবার গুলির হাতে এই সংক্রান্ত নোটিশ এসে পৌঁছেছে। নোটিশে ১৮ অক্টোবরের মধ্য পরিবার গুলিকে কলকাতার আলিপুরের অফিসে দেখা করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
এই ঘটনায় শোরগোল পড়েছে শালবনির এই বাকিবাঁধ অঞ্চলে।

বাকিবাঁধের কমলা, উপর কমলা, বড় বাগড়া, জামবনী, বীরভানপুর, পচা কুমার ঢেঙ্গাশোল প্রভৃতি এলাকায় মৌজা আনুমানিক চার হাজার পরিবারের বসতি
এলাকার এই বসবাসকারীদের। এই জায়গাগুলি প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের অধিনস্ত বলে জানা গিয়েছে। ইংরেজ আমল থেকে এই এলাকায় বায়ুসেনার বিমান ওঠানামা করত পরবর্তীকালে এই এলাকাতে গড়ে উঠেছিল ট্যাঁকশাল ও সিআরপিএফের কোবরা বাহিনীর ট্রেনিং ক্যাম্প। এরই আশপাশে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের এক হাজার একর জমিতে গড়ে উঠেছে স্থানীয় বাসিন্দাদের বসবাস।

স্থানীয়দের দাবি ব্রিটিশ আমল থেকে তারা শালবনির এসব এলাকায় বসবাস করে আসছে পরিবার পরিজনদের নিয়ে। স্থানীয় বৃদ্ধা কমলা দত্ত জানিয়েছেন যে, এই বসত বাড়ি ছেড়ে আমরা কোথাও যাবো না, মরতে হলে এখানেই মরবো।

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *