সন্তান না হওয়ায় অত্যাচারিত, আত্মঘাতী গৃহবধূ

এনএফবি, দক্ষিণ দিনাজপুরঃ

সন্তান না হওয়ায় গৃহবধূর ওপর অত্যাচার দিনের পর দিন। অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হলেন গৃহবধূ। এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ উঠেছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বংশীহারী ব্লকের কুসুম্বা এলাকায়।

জানা গেছে, বছর ২৮ এর গৃহবধুর নাম সম্পা সরকার। ১০ বছর আগে স্বামীর রঞ্জন সরকারের সাথে তার বিয়ে হয়। মৃতা গৃহবধূর আত্মীয়দের অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই স্বামী-সহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন সন্তান না হওয়ার কারণে ওই গৃহবধূর ওপর মানসিক ও শারীরিক অত্যাচার চালাতো।

প্রদীপ সরকার, মৃতার মামা

পাশাপাশি অভিযোগ উঠেছে বারবার চাপ দিয়ে বাপের বাড়ি থেকে টাকা পয়সা আদায় করতেন স্বামী-সহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন। বৃহস্পতিবার শ্বশুর বাড়ির লোকজনদের অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে নিজের শোয়ার ঘরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হন গৃহবধূ।

ঘটনায় কুসুম্বা এলাকায় নেমেছে শোকের ছায়া। বংশীহারী থানার পুলিশ দেহটি উদ্ধার করে প্রথম অবস্থায় রশিদপুর গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে আসে। শুক্রবার সকালে ময়না তদন্তের জন্য গৃহবধূর দেহ পাঠানো হয় বালুরঘাট জেলা হাসপাতাল মর্গে। সমগ্র বিষয়টি খতিয়ে দেখছে বংশীহারী থানার পুলিশ।

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।