১৯৯২ বিশ্বকাপের চিত্রনাট্য, কিউইদের হারিয়ে বিশ্বকাপ ফাইনালে পাকিস্তান

অঞ্জন চ্যাটার্জী, এনএফবিঃ

আবার বছর কুড়ি বাদে। ১৯৯২ বিশ্বকাপের চিত্রনাট্য। সেবারও বিশ্বকাপ হয় অস্ট্রেলিয়ায়। আর এবারও টি-২০ বিশ্বকাপ হয়। অস্ট্রেলিয়ায় সেবারও নিউজিল্যান্ডকে সেমিফাইনালে হারিয়ে ফাইনালে গিয়েছিল পাকিস্তান। ইমরানের পাকিস্তানের মত বাবর আজমের পাকিস্তানও খারাপ শুরু করলেও সেমিতে কিউই বধ করে। আজও পাকিস্তান বধ করল নিউজিল্যান্ডকে ৭ উইকেটে হারিয়ে ২০২২ টি-২০ বিশ্বকাপের ফাইনালে পাকিস্তান। এদিন প্রথমে ব্যাট করে ২০ ওভারে ১৫২/‌২ তোলে কিউয়িরা। জবাবে ১৯.‌১ ওভারে ১৫৩/‌৩ তুলে ম্যাচ জিতে যায় পাকিস্তান। পাকিস্তানকে ফাইনালে তুলল বাবর আজম ও মহম্মদ রিজওয়ানের দুরন্ত ব্যাটিং।টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদান্ত নেন কেন উইলিয়ামসন। শুরুটা ভাল হয়নি নিউজিল্যান্ডের। প্রথম ওভারেই ফিন অ্যালেনকে (‌৪)‌। তুলে নেন শাহিন আফ্রিদি। ষষ্ঠ ওভারে সাদাব খানের দুরন্ত থ্রো-তে সাজঘরে ফেরেন কনওয়ে (‌২০ বলে ২১)‌। অষ্টম ওভারে গ্লেন ফিলিপকে (‌৮ বলে ৬)‌ নিজের বলেই ক্যাচ ধরে তুলে নেন মহম্মদ নওয়াজ।৮ ওভারের মধ্যে ৪৯ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর নিউজিল্যান্ডকে টেনে নিয়ে যান অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন ও ড্যারিল মিচেল। জুটিতে ওঠে ৬৮। ১৭ তম ওভারে জুটি ভাঙেন শাহিন আফ্রিদি। তাঁর বলে বোল্ড হন কেন উইলিয়ামসন। ৪২ বলে ৪৬ রান করেন তিনি। ড্যারিল মিচেলের সঙ্গে উইলিয়ামসন আউট হওয়ার পর হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন মিচেল। ৩২ বলে তাঁর ৫০ আসে। শেষ পর্যন্ত ৩৫ বলে ৫৩ রান করে তিনি অপরাজিত থাকেন। জিমি নিশাম করেন ১২ বলে অপরাজিত ১৬। ‌২৪ রানে ২ উইকেট নেন শাহিন আফ্রিদি।‌পাকিস্তান ব্যাট করতে নেমে কিউই বোলিংয়ের উপর একপ্রকার বুলডোজার চালায়। তাঁদের দুই ওপেনার অধিনায়ক বাবর আজম আর মহ রিজওয়ানকে আউট করতে হিমশিম খায় তারা। বাবর ৪২ বলে ৫৩ করেন আর রিজওয়ান করেন ৪৩ বলে ৫৭। এছাড়া হ্যারিস ২৬ বলে ৩০ রান করেন । ৫ বল বাকি থাকতেই ৩ উইকেট হারিয়ে জয়ের জন্য রান তুলে নেয় পাক ব্রিগেড।

বৃহস্পতিবার ভারত-ইংল্যান্ড দ্বিতীয় সেমিফাইনালে যে জিতবে সেই দলের সঙ্গে ফাইনাল খেলবে পাকিস্তান।

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।