জুন 22, 2024
Latest:
সাক্ষাৎকার

চেন্নাই ম্যাচ জেতা উচিত ছিল বলছেন দিয়াজ

অঞ্জন চ্যাটার্জী, এনএফবিঃ

গত ম্যাচের পরে দলের বেহাল দশা দেখে মেজাজ হারিয়ে বলেছিলেন, এই দল নিয়ে আইএসএলে জেতা কঠিন। কারণ, দলের খেলোয়াড়রা কেউ এই লিগের মানের নন। কিন্তু শুক্রবার তিলক ময়দানে গত দুই ম্যাচ জিতে আসা চেন্নাইন এফসি-র বিরুদ্ধে তাঁর দলের গোলশূন্য ড্র দেখে ফের জয়ের স্বপ্ন দেখা ও দেখানো শুরু করেছেন এসসি ইস্টবেঙ্গলের কোচ হোসে মানুয়েল দিয়াজ। এদিন দলের পারফরম্যান্স নিয়ে তিনি খুশি। কী বলেলন এই পারফরম্যান্স নিয়ে? জেনে নেওয়া যাক।

প্রশ্নঃ চারটি ম্যাচ খেলার পরে এখন দলের অবস্থা কেমন বুঝছেন?

দিয়াজঃ আজকের ফলটা আমাদের পক্ষে গুরুত্বপূর্ণ। চেন্নাইয়ের কাছেও ‘অপশন’ ছিল। তবে এই জায়গা থেকে আমরা উন্নতি করতে পারব বলেই মনে হয়।

প্রশ্নঃ ওড়িশা এফসি-র কাছে বড় হারের পরে দলের ছেলেদের উদ্বুদ্ধ করলেন কী ভাবে?

দিয়াজঃ গত ম্যাচে আমরা প্রচুর ভুল করেছিলাম। ওরা নিজেরাই আজ সেদিনের চেয়ে ভাল পারফরম্যান্স দেখানোর জন্য মরিয়া ছিল।

প্রশ্নঃ গত ম্যাচের পরে বলেছিলেন এই দল নিয়ে জেতা কঠিন। আজকের ম্যাচের পরে কি বলবেন, জেতা সম্ভব?

দিয়াজঃ দ্বিতীয় ম্যাচে আমরা একেবারেই ভাল খেলতে পারিনি। কিন্তু অন্য ম্যাচগুলোতে ভাল খেলা উচিত ছিল। ওড়িশার বিরুদ্ধে আমরা ১২ মিনিটের মধ্যে তিনটি সেটপিসের গোলে হেরে গিয়েছিলাম। এছাড়াও বড় ভুল করেছিলাম। আজ চেন্নাইন এফসি যেমন গোলের সুযোগ পেয়েছিল, আমরাও পেয়েছিলাম। আমরা ম্যাচটা জিততে পারতাম।

প্রশ্নঃ এই ম্যাচের ফল থেকে উদ্বুদ্ধ হয়ে কি ভবিষ্যতে জয় অর্জন করা সম্ভব হবে আপনাদের পক্ষে?

দিয়াজঃ এখন এটাই আমাদের লক্ষ্য। ম্যাচ জেতা। ক্লাব কর্তারাও আমাদের উদ্দেশ্য ভালমতোই বুঝতে পেরেছেন। আশা করি, খুব তাড়াতাড়িই প্রথম জয়টা পাব আমরা।

প্রশ্নঃ চিমা ও হীরা আজ শুরু থেকে নেমে দুর্দান্ত খেলেছেন। আপনি কি ওদের পারফরম্যান্সে খুশি?

দিয়াজঃ ওরা আজ ভাল খেলেছে ঠিকই। তবে ওদের আরও ভাল খেলতে হবে।

প্রশ্নঃ মহম্মদ রফিকের চোট নিয়ে কিছু বলবেন?

দিয়াজঃ মনে হয় ও কিছুটা ক্লান্ত হয়ে পড়েছিল। পুরো ম্যাচ খেলেছে ও। আশা করি, শুধু ক্লান্তির জন্যই ও আর খেলতে পারেনি। সেই জন্যই পেশিতে টান ধরে যায়।

একই সাথে এদিনের ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় হীরা মন্ডল বলেন, এই ম্যাচটা জিততে পারলে আমরা খুব খুশি হতাম। কারণ, আগের তিনটে ম্যাচ খুব বাজে গিয়েছে। অনেকে অনেক কথা বলছেন। সমর্থকেরাও খুব হতাশ, আমরা ভাল ফল করতে পারছি না বলে। তাই এই ম্যাচটা আমাদের জেতা দরকার ছিল। আজ অনেকগুলো গোল মিস করেছি। না হলে ম্যাচটা জিততেও পারতাম। তবে হারলে আরও খারাপ হত। এক পয়েন্ট পাওয়াটা তাই খারাপ নয়। এই ফল পরের ম্যাচে (এফসি গোয়া) আমাদের উদ্বুদ্ধ করবে। গত তিনটে ম্যাচে ড্র করেছি, হেরেছি। বিশেষ করে শেষ ম্যাচটা (ওড়িশা এফসি)। সেই জায়গা থেকে নিজেদের বার করে এনে আজ জেতার জায়গাতেও চলে এসেছিলাম। ম্যাচটা যে আমরা হারিনি, এক পয়েন্ট পেয়েছি, এটাই বড় মোটিভেশন। পরের ম্যাচে আমাদের তিন পয়েন্টই লক্ষ্য থাকবে। আমি বিশ্বাসই করতে পারছি না যে আমি ম্যাচের নায়কের পুরস্কার পেয়েছি। এর পুরোপুরি কৃতিত্ব আমার মায়ের। মায়ের ট্যাটু রয়েছে আমার হাতে। মায়ের ভালবাসা ও আশীর্ব্বাদ না থাকলে আজ আমি এই জায়গায় আসতে পারতাম না। এক পয়েন্টে খুশি নই, দলের খেলায় খুশি।

অন্যদিকে, চেন্নাইন এফসি দলের কোচ বজিদার বান্দোভিচ দলের পারফরম্যান্সে খুশি হলেও ফল নিয়ে একেবারেই খুশি নন। কারণ, তিনি মনে করেন তাঁর দল এদিন বিপক্ষের চেয়ে ভাল খেলেছেন এবং তাঁদের ম্যাচটা জেতা উচিত ছিল। সাংবাদিকদের যা বলেন তিনি, তার নির্বাচিত অংশ তুলে দেওয়া হল।

প্রশ্নঃ আজকের ফলে কি আপনি খুশি?

বান্দোভিচঃ আমরা যে ভাবে গোলের সুযোগ তৈরি করেছিলাম এবং সারা ম্যাচে আধিপত্য বিস্তার করেছিলাম, তাতে এই ফলে খুশি হওয়ার কোনও কারণ নেই। আমরা আজ ওদের চেয়ে ভাল খেলেছি। ম্যাচটা আমাদের জেতা উচিত ছিল। তাই মাত্র এক পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়াটা মোটেই ভাল হয়নি। বিপক্ষে অনেক লং বল খেলেছে। ওদের রক্ষণেও সমস্যা ছিল। তবে আমাদের ছেলেদের পারফরম্যান্সে আমি খুশি। আমরা ক্রমশ উন্নতি করছি। এই অবস্থায় আমাদের ইতিবাচক থাকতে হবে।

প্রশ্নঃ এই ড্রয়ের পরে আপনারা লিগ তালিকার শীর্ষে উঠে গেলেন। তবে শীর্ষে থাকার চেয়ে কি ম্যাচ জেতা বেশি গুরুত্বপূর্ণ নয়?

বান্দোভিচঃ আমি এখন শুধু পরের ম্যাচ নিয়ে চিন্তা করছি। লিগ টেবলে কোথায় আছি, তা নিয়ে আমার কোনও মাথাব্যথা নেই।

প্রশ্নঃ রহিম আলির পারফরম্যান্স নিয়ে কী বলবেন? উনি আজ একাধিক সুযোগ নষ্ট করেছেন। ওঁকে কি খেলিয়ে যেতে চান?

বান্দোভিচঃ আপনাদের খুশি হওয়া উচিত যে অন্তত একটা ক্লাব একজন ভারতীয়কে ফরোয়ার্ড হিসেবে খেলাচ্ছে। আমরা যে ভাবে ওর পাশে আছি, তা না থাকলে ও ভাল খেলতে পারত না। ও সুযোগ পেয়েছে। তবে শুধু রহিম নয়, আমি আশা করেছিলাম, অন্যেরাও গোল করবে। আমার মনে হয় রহিমকে আরও সুযোগ দেওয়া উচিত।