রাজ্য

ক্ষতিপূরণের টাকা পেলেও মেলেনি চাকরি, দ্বারস্থ বনমন্ত্রীর

এনএফবি, পশ্চিম মেদিনীপুরঃ

হাতির আক্রমণে প্রাণ হারানোর ক্ষতিপূরণে মিলেছে এক লক্ষ টাকা, কিন্তু মেলেনি চাকরি। তাই বনমন্ত্রীর দ্বারস্থ হলেন স্বামীহারা গৌরী পাল দাস। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন মৃতের পরিবারে ক্ষতিপূরণ ও পরিবারের একজনকে চাকরি দেওয়া হবে। দু’বছর বিভিন্ন দপ্তরে ঘুরে ঘুরেও মেলেনি কোনো চাকরি। অবশেষে রবিবার গোপগড়ের বনবান্ধব উৎসবে উপস্থিত বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের দ্বারস্থ হন মৃতের স্ত্রী।

হাতির আক্রমণে প্রাণ হারানোর ক্ষতিপূরণে মিলেছে এক লক্ষ টাকা, কিন্তু মেলেনি চাকরি। তাই বনমন্ত্রীর দ্বারস্থ হলেন স্বামীহারা গৌরী পাল দাস।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে গোয়ালতোড়ের বালিবাঁধ গ্রামে রাতে ঘুমোনোর সময় হামলা চালায় এক হাতি। সেই ঘটনায় মৃত্যু হয় সঞ্জয় পাল নামক ব্যক্তির। ঘটনার পর গোয়ালতোড়ের শ্বশুর বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়। দুই সন্তান সহ গৌরী পাল দাস বর্তমানে পাহাড়িয়া গ্রামে থাকেন।

মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক ওই মহিলার নাম লিপিবদ্ধ করেন। ও সঙ্গে সঙ্গে সেখানে উপস্থিত পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা পুলিশ সুপার দীনেশ কুমারকে নির্দেশ দেন, মহিলার চাকরির জন্য যাবতীয় ব্যবস্থা নেওয়ার।

মন্ত্রী আরও জানান, হাতির হামলায় যে সাত জনের চাকরি বাকি আছে তাদের ও দ্রুত চাকরির ব্যবস্থা করা হবে।

এ দিন মন্ত্রীর কাছ থেকে চাকরির আশ্বাস পেয়ে নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন গৌরী।

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।