নেতাই শহীদ দিবস উদযাপনে জমি ছাড়তে নারাজ কেউই

এনএফবি,ঝাড়গ্রামঃ

লালগড়ে প্রত্যেক বছর ৭ই জানুয়ারি নেতাই শহীদ দিবস উদযাপন করা হয় । প্রতিবছর নেতাই শহীদ স্মৃতি রক্ষা কমিটির উদ্যোগেই এই দিনটি পালিত হয় । যদিও ব্যবস্থাপনায় থাকে তৃণমূল কংগ্রেস । বিগত দিনে প্রতিবছর শুভেন্দু অধিকারী শহীদ বেদীতে মাল্যদান করে শহীদদের প্রতি সম্মান জানাতেন । কিন্তু শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগদানের পর এই ছবিটি বদলে গিয়েছে । গতবছর শহীদ বেদীতে শুভেন্দু বিজেপি নেতা-কর্মীদের নিয়ে মাল্যদান করে তারপরে তৃণমূল কংগ্রেস শহীদ বেদীতে মাল্যদান করে । উপস্থিত ছিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও মদন মিত্র ।

তবে এই বছর তৃণমূল নেতা-কর্মীরা নেতাই শহীদ বেদী এক মুহূর্তের জন্য ছাড়তে নারাজ । বৃহস্পতিবার দিনভর শহীদ বেদীর কাছে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রী শ্রীকান্ত মাহাতো ৷ তার নিজস্ব ভাবনা দিয়ে সাজিয়ে তোলা হয়েছে নেতাই শহীদ বেদী কে । শহীদ বেদীর পাশে তৈরি হয়েছে মঞ্চ , যেখানে শহীদ পরিবার গুলিকে সংবর্ধনা ও সাহায্য দেওয়ার পাশাপাশি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের কথা রয়েছে । ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের মন্ত্রী মানস ভুঁইয়ার ও আসার কথা রয়েছে ।

অপরদিকে হাইকোর্ট থেকে নেতাই শহীদ বেদীতে মাল্যদান করার অনুমতি পেয়েছে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী । বিজেপির তরফ থেকে জানা গিয়েছে, এদিন দুপুর দুটোয় নেতাই এর শহীদ বেদীতে মাল্যদান করবেন শুভেন্দু অধিকারী । কিন্তু নেতাই পৌঁছনোর প্রতিটি রাস্তায় পুলিশের কড়া ব্যারিকেড রয়েছে । জানা যাচ্ছে , তৃণমূলের কর্মসূচি শেষ হওয়ার পরে নেতাইয়ে শুভেন্দুর কর্মসূচি শুরু হবে । কিন্তু তৃণমূল সূত্রে, জানা যাচ্ছে নেতাই শহীদ দিবসের কর্মসূচি আজ সারাদিন ধরেই পালিত হবে । তবে কি আজ শুভেন্দু অধিকারী নেতাই শহীদ বেদীতে মাল্যদান করতে পারবে না ? এটা নিয়েই শুরু হয়েছে জোর জল্পনা ৷

২০১১ সালের ৭ই জানুয়ারি তৃণমূলের মিছিলে নির্বিচারে গুলি চালানোর অভিযোগ ওঠে সিপিএমের হার্মাদ বাহিনীর উপর । ঘটনায় মৃত্যু হয় ৯ জনের ৷আহত হন বহু গ্রামবাসী । তারপর থেকেই প্রতিবছর এই দিনটি নেতাই শহীদ দিবস হিসেবে উদযাপন করা হয় ।


খবরটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করুন

নিউজফ্রন্ট বাংলার এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 95936 66485

Leave a Reply

Your email address will not be published.