ক্রীড়া

ডার্বির আগে এই জয় আত্মবিশ্বাস দিলো বলছেন স্টিফেন

এনএফবি, স্পোর্টস ডেস্কঃ

আইএসএলের লিগ পর্বের চ্যাম্পিয়ন মুম্বই সিটি এফসি-কে হারানোর পর যে প্রচুর আত্মবিশ্বাস পেয়েছেন তাঁর দলের ছেলেরা, এই নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই ইস্টবেঙ্গল এফসি-র কোচ স্টিফেন কনস্টান্টাইনের। তিনি মনে করেন, আগামী শনিবার কলকাতা ডার্বিতে একটা ভাল লড়াই দেখার সুযোগ পেতে চলেছেন দুই দলের সমর্থকেরা। তবে নিজেদের এটিকে মোহনবাগানের চেয়ে এগিয়ে রাখার পক্ষপাতী নন তিনি।

রবিবার ১৮টি ম্যাচে অপরাজিত মুম্বই সিটি এফসি-কে ১-০-য় হারানোর পরের মুহূর্ত থেকেই লাল-হলুদ শিবিরে ঢুকে পড়ল ডার্বি নিয়ে ভাবনা-চিন্তা। ব্রিটিশ কোচ কনস্টান্টাইন বলেন, “ডার্বি সবার কাছে কতটা গুরুত্বপূর্ণ, তা খুব ভাল করেই জানি। আমরা ম্যাচটা জিততেই চাই। আমরা আজ জিতেছি। ওরাও গতকাল ভাল জয় পেয়েছে। তাই ডার্বিতে জোর লড়াই হবে। তবে এটিকে মোহনবাগান যেহেতু সেরা ছয়ে রয়েছে, তাই ওরাই আমাদের চেয়ে এগিয়ে। পরের মরশুমে হয়তো আমরা এগিয়ে থাকব”।

রবিবার মুম্বই ফুটবল এরিনায় জ্বলে ওঠে লাল-হলুদ বাহিনীর মশাল। এই প্রথম সাগরপাড়ের দলের বিরুদ্ধে জয় ও গোল পায় তারা। দ্বিতীয়ার্ধে ৫২ মিনিটের মাথায় নাওরেম মহেশ সিংয়ের একমাত্র গোলে চলতি লিগের ছ’নম্বর জয়টি পায় ইস্টবেঙ্গল এফসি। বেঙ্গালুরু এফসি-র পর এ বার তাদের কাছেও হার মানে টানা ১৮টি ম্যাচ জিতে আসা মুম্বই সিটি এফসি। যদিও এতে মুম্বইয়ের তেমন কোনও ক্ষতি হয়নি। কারণ, লিগ পর্বের শ্রেষ্ঠত্ব পাওয়া হয়েই গিয়েছে তাদের। কিন্তু এই জয়ের ফলে ইস্টবেঙ্গল এফসি এক ধাপ ওপরে, অর্থাৎ, ন’নম্বরে উঠে পড়ে।

কোচের ধারণা, কলকাতা ডার্বির সপ্তাহ খানেক আগেই এমন এক অঘটন ঘটিয়ে প্রচুর আত্মবিশ্বাস অর্জন করে নিল তাঁর দল। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “রবিবারের এই জয়ের আশা করি, আজকের পারফরম্যান্স থেকে যে আত্মবিশ্বাস পেলাম আমরা, তা পরের ম্যাচে আমাদের সঙ্গে থাকবে। কেরালা, জামশেদপুরের বিরুদ্ধে ম্যাচের আত্মবিশ্বাসও সঙ্গে থাকবে। এই ম্যাচগুলোতেই আমরা বুঝিয়ে দিয়েছি, নিজেদের দিনে আমরা যে কোনও দলকে হারাতে পারি। হয়তো অনেকেরই মনে আছে, ডুরান্ড কাপেও আমরা পূর্ণশক্তির মুম্বইকে হারিয়েছিলাম। আমরা সেরা দল না হতে পারি। কিন্তু আমাদের চেষ্টায় কোনও ত্রুটি হয়নি কখনও”।

এ দিনের দুর্দান্ত জয় নিয়ে প্রাক্তন ভারতীয় কোচ বলেন, “দলের ছেলেদের পারফরম্যান্সে আমি অভিভূত। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ওরা ভাল খেলেছে। আজ আমরাই ওদের চেয়ে ভাল খেলেছি। মুম্বই সিটি এফসি-কে শিল্ড জেতার জন্য অভিনন্দন। আমরাই প্রথম ওদের ঘরের মাঠে হারালাম ক্লিন শিট রেখে, সেটা ভেবেও দারুন লাগছে। একমাত্র একটা ম্যাচেই প্রতিপক্ষ আমাদের উড়িয়ে দিয়েছিল, যখন কলকতায় গিয়েছিল মুম্বই। বাকি সব ম্যাচেই আমরা লড়াই করেছি। কিন্তু প্রচুর ভুলের জন্য সাফল্য পাইনি। আমার দলের ছেলেরা হয়তো এই লিগে সেরা নয়। কিন্তু ওরা যে ভাবে নিজেদের উজাড় করে দিয়েছে, তা প্রশংসার যোগ্য”।

YouTube player

এত দিন ধরে সমর্থকদের অনেকেই তাঁকে ও তাঁর দলের উদ্দেশ্যে অনেক কটূ কথা শুনিয়েছেন বলে অভিযোগ। কিন্তু রবিবারের জয়ই তাঁদের অনেকের মুখ বন্ধ করে দিতে পারে। এই প্রসঙ্গে বেশি কথা বলতে না চাইলেও কোচ বলেন, “নিন্দুকদের জন্য হয়তো এটাই যোগ্য জবাব নয়। কারণ, এর আগে অনেক বাজে বাজে ভুল করে ম্যাচ হেরেছি আমরা। তা ছাড়া, ইস্টবেঙ্গলের মতো বড় দলের কোচ হয়ে কখনও সবাইকে খুশি করা সম্ভব নয়। ছ’টা ম্যাচ জিতে এ বার আইএসএলে আমরা গত দুবারের চেয়ে ভাল ফল করেছি। এখনও লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা আমাদের দলের”।

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।