তৃণমূল কর্মী খুনে রাজনৈতিক চাপান-উতোর কান্দিতে

এনএফবি, মুর্শিদাবাদঃ

শুক্রবার সন্ধ্যায় নেপাল সাহা নামের এক তৃণমূল কর্মী খুন হয় কয়েকজন দুষ্কৃতীর হাতে কান্দি থানার অন্তর্গত দুর্গাপুর এলাকায়।তারপরই এই খুনের ঘটনায় রাজনৈতিক চাপান-উতোর শুরু কান্দির রাজনীতিতে।

জানা গিয়েছে তৃণমূল কর্মী নেপাল সাহা পেশায় কান্দি থানার দুর্গাপুর এলাকার রেশন ডিলার ছিলেন। তিনি শুক্রবার রাত্রে রেশন দোকান বন্ধ করে বাড়ি যাচ্ছিলেন। এমন সময়ই কয়েক জন দুষ্কৃতী তাঁর উপর চড়াও হয় এবং ধারালো অস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায় বলে অভিযোগ। ধারালো অস্ত্রের কোপে নেপাল সাহার শরীরের একাধিক জায়গা ক্ষত বিক্ষত হয়। শুক্রবার রাতে কান্দি থানার পুলিশ নেপাল সাহার মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কান্দি মহকুমা হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। শনিবার নেপাল সাহার মৃতদেহের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয় কান্দি মহকুমা হাসপাতালের মর্গে। নেপাল সাহার খুনের ঘটনায় গোষ্ঠী কোন্দলের অভিযোগ তুলছে কংগ্রেস ও বিজেপি। যদিও গোষ্ঠী কোন্দলের অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। তবে শাসক দলের রাজনৈতিক নেতার খুনের ঘটনায় কোন রাজনৈতিক অভিসন্ধি লুকিয়ে আছে নাকি কোনো ব্যক্তিগত আক্রোশের জন্য এই খুন তা বোঝা যায়নি। শনিবার সকাল থেকে কান্দির দুর্গাপুর এলাকায় বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন রয়েছে এবং কান্দি থানায় লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে সামগ্রিক ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে কান্দি থানার পুলিশ প্রশাসন।

সফিউল আলম খান, প্রাক্তন বিধায়ক। কান্দি বিধানসভা কেন্দ্র
বিনীতা রায়। সভানেত্রী, কান্দি শহর বিজেপি
নরোত্তম সিংহ, কংগ্রেস নেতা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.