কুমারগঞ্জের স্বামীহারা আমীনার দিনযাপনে মেলেনা কোন সরকারি সাহায্য

এনএফবি, দক্ষিণ দিনাজপুরঃ

পাঁচ সন্তানের জননী আমীনা। তবুও কোন সন্তানেরই নেই জন্মের শংসাপত্র। হয়নি রেশন কার্ড, আধার কার্ড। প্রতিবেশীদের সাহায্যেই দিন গুজরান স্বামীহারা আমীনার, মেলেনা সরকারি সাহায্য।

আমীনা বেওয়া

বছর কয়েক আগে রাজস্থানের পাথর খাদানে পরিযায়ী শ্রমিকের কাজ করতে গিয়েছিল কুমারগঞ্জের ডালনাপাড়ার বাসিন্দা আমীনা বেওয়া ও তার স্বামী। সেখানে তাদের পাঁচ সন্তানের জন্ম হয়। কিন্তু সেখানে সেসময় কোন জন্মের শংসাপত্র নিতে পারেননি তারা। পরে স্বামী, খাদানে কাজ করতে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে, শারীরিক দুর্বলতার কারণে ফের কুমারগঞ্জের বাড়িতে ফিরে আসে তারা। গত বছর সেপ্টেম্বর মাসে স্বামীর মৃত্যুর পর থেকেই সন্তানদের জন্মের শংসাপত্র না থাকায় আমীনা বেওয়া তার সন্তানদের মুখের অন্ন যোগানোর পাশাপাশি তাদের শিক্ষার জন্য স্কুলে ভর্তি পর্যন্ত করতে পারছেন না। প্রতিবেশীরা তাদের দুর্দশা দেখে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ায় কোনরকমে দিনকাটছে অসহায় এই পরিবারের।

প্রিয়াঙ্কা সিংহ রায়, স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান

অসহায় এই পরিবারের দুর্দশার যাতে দ্রুত নিষ্পত্তি হয় তার জন্য স্বামীহারা আমীনা বেওয়ার পাশে দাঁড়িয়েছেন প্রতিবেশীরা। তারাও চান স্থানীয় পঞ্চায়েতের সহযোগীতায় এই অসহায় পরিবারটি সরকারি বিভিন্ন সুযোগ সুবিধে পেয়ে নিজেদের জীবন যাপন করে উঠতে পারেন।

সাইফুল মন্ডল,স্থানীয় বাসিন্দা

Leave a Reply

Your email address will not be published.