উপাচার্য নিয়োগে বেনিয়মের অভিযোগে টুইট নিক্ষেপ ধনখড়ের, পাল্টা কটাক্ষ কল্যাণের

এনএফবি, নিউজ ডেস্কঃ

বছর শেষে ফের নবান্নের বিরুদ্ধে অভিযোগের টুইট নিক্ষেপ করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। এবারে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিয়োগে বেনিয়মের অভিযোগ আনলেন তিনি। আইনি পদক্ষেপের হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন। পাল্টা রাজ্যপালের টুইট কালচারকে কটাক্ষ করেছেন তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজ্যপালের অভিযোগ, তাঁর অনুমোদন ছাড়াই রাজ্যের ২৪ টি বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য নিয়োগ করা হয়েছে। এই তালিকায় কলকাতা, প্রেসিডিন্সি, যাদবপুর, রবীন্দ্রভারতীর মতো একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম আছে। মুখ্যমন্ত্রীকে ট্যাগ করে জগদীপ ধনখড় লিখেছেন, ” সুনির্দিষ্ট আদেশ অমান্য করে, আচার্যের অনুমতি বা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমোদন ছাড়াই এই নিয়োগ হয়েছে। এই নিয়োগের কোনও আইনি অনুমোদন নেই। এই সিদ্ধান্ত শীঘ্রই প্রত্যাহার না করা হলে ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হতে হবে।”

উল্লেখ্য, সাংবিধানিক পদাধিকার বলে বিশ্ববিদ্যালয়গুলির আচার্য রাজ্যপাল। আচার্য নিয়োগ করে উপাচার্যদের এক্ষেত্রে সেই নিয়ম মানা হয়নি বলে অভিযোগ ধনখড়ের।

এদিকে রাজ্যপালের এই টুইট সংস্কৃতিকে কটাক্ষ করে তৃণমূল সাংসদ তথা আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে ট্যাগ করে কটাক্ষ করেন। এদিন টুইটে কল্যাণ লেখেন, ” রাজ্যপালের আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত টুইটের মাধ্যমে জানানো হয়ে থাকে। কিন্তু আপনি টুইট এবং মিডিয়ায় মগ্ন, এটা সবাই জানেন। আপনি সাংবিধানিক পদকে উপহাস করছেন।”

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের রাজভবনে তলব করেছিলেন ধনখড়। কিন্তু কোভিড পরিস্থিতির কথা বলে বৈঠক এড়িয়েছেন তাঁরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.