শান্তনু সেনকে তোলাবাজ বলে তোপ দিলীপের

এনএফবি, পূর্ব মেদিনীপুরঃ

সবচেয়ে বড় তোলাবাজ শান্তনু সেন। একজন ডাক্তার, কাউন্সিলর, রাজ্যসভার সদস্য, মেডিকেল বোর্ডের মিটিং-এ গিয়েছিল সেখানকার মানুষ গোব্যাক স্লোগান দিচ্ছে। কন্ট্রাক্টরদের একাংশ বলছে তাদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে টাকা চেয়ে।একজন ডাক্তার রাজ্যসভার সদস্য কাউন্সিলর হয়ে যদি এরকম অবস্থা হয়, ভাবুন দলটার কী অবস্থা। তবে বাদ যাবে না কেউ সেই দলের মাথাকেও একদিন জেলে যেতে হবে। পুলিশ না নিয়ে গেলেও তিনি নিজের থেকে যাবেন কারণ সমস্ত নেতারাই জেলের মধ্যে থাকবে। ফলে জেলে তিনি নিজের থেকে গিয়ে মিটিং মিছিল করবেন।-
তৃণমূলের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন দিলীপ ঘোষ।

বাদ যায়নি কেষ্ট পার্থের কোটি কোটি টাকা খরচের কালীপূজা, যা ঘটা করে উদ্বোধন করতেন মমতা ব্যানার্জী। এ দিন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি বলেন, কোলের ভাই কেষ্ট ১১কিলো গহনা তৈরি করে মায়ের পূজো করেন পার্টি অফিসে সেই গয়না পরানোর মতো এখন লোক নেই। কারণ, প্রত্যেকেই জেনে গেছে যে ওই গয়না পড়াতে যাবে সেই জেলে যাবে। মাকে এত কিছু দিয়েও আটকাতে পারল না জেলেরা মোটা চালের ভাত খেতে হচ্ছে।

অপরদিকে কলকাতার সবচেয়ে নামি কালীপুজো পার্থ চ্যাটার্জির পুজো। খুব ঘটা করেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই পুজোর উদ্বোধন করতেন। কিন্তু এবারে সে রাস্তা মাড়ায়নি দিদিমণি কারন জেনে গেছে ওই রাস্তা খুব অপবিত্র।

সবচেয়ে খারাপ সময় পশ্চিমবঙ্গের তার চেয়েও খারাপ সময় তৃণমূলের এবং তার থেকেও সবচেয়ে বেশি খারাপ সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

পূর্ব মেদিনীপুর জেলার তমলুকে রামতরকে বিজয়া সম্মেলনী অনুষ্ঠানে এসে এই মন্তব্য করেন দিলিপ ঘোষ।

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *