পোস্টার দিয়ে একঘরে করার ফতোয়া মহিষাদলে

এনএফবি, পূর্ব মেদিনীপুরঃ

খাপ পঞ্চায়েতের ছায়া মহিষাদলে। পোষ্টার দিয়ে একঘরে করার ফতেয়া জারি এক পরিবারের বিরুদ্ধে। পুলিশের দ্বারস্থ পরিবার।

জানা গেছে, মহিষাদলের জগৎপুর গ্রামের পশ্চিম কুইল্যা রবীন্দ্রপল্লী এলাকার বাসিন্দা ছবি লাল দাসের পরিবারকে একঘরে করার নিদান দিয়ে গ্রামের একাধিক জায়গায় পোস্টার ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। অভিযোগকারী পরিবার এই ঘটনার জন্য স্থানীয় পল্লী সমবায় গ্রামীণ কমিটির বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন।

পোস্টারে ঘোষণা করা হয়েছে, কোনভাবেই পাড়ার কোন ব্যক্তি অভিযোগকারীর বাড়িতে নেমন্তন্ন বা মেলামেশা করলে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হবে।

পোস্টারে পল্লী কমিটির সভাপতি রঙ্গলাল কুইল্যা, সম্পাদক বিধানচন্দ্র কুইল্যা ও কোষাধক্ষ্য মধুসূদন মান্নার নাম দেওয়া হয়েছে।

মা এবং স্ত্রীর সঙ্গে অভিযোগকারী প্রণয় কুমার দাস। নিজস্ব চিত্র

কেন সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে গ্রাম কমিটির পক্ষ থেকে ওই পরিবারের প্রতি ফতেয়া জারি করা হয়েছে? – এ বিষয়ে ছবিলাল দাসের ছেলে প্রণয় কুমার দাস জানান, আমার বাবা এক সময় ওই পল্লী কমিটির গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন কয়েক মাস আগেই ওই কমিটি থেকে বের করে দেওয়া হয় আমার বাবাকে। তার বিশেষ কারণ আমি এক বিবাহিত মহিলাকে বিয়ে করি এর ফলে আমাদের এই দাম্পত্য জীবন পল্লীবাসী মেনে নিতে পারেননি। ফলে প্রথমে বাবাকে ওই পল্লী কমিটি থেকে বহিষ্কার করা হয় পরে আমাদের পরিবারকে কোনঠাসা করার চেষ্টা করে। পরে এই পোস্টার এর মধ্য দিয়ে আমাদেরকে আরও বিপাকে ফেলার চেষ্টা করেছে ওরা। যার ফলে আমরা আতঙ্কিত।

ছবিলাল দাসের পরিবার এবিষয়ে মহিষাদল থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

যদিও প্রতিবেশীরা জানান তারা এই পোস্টার সম্পর্কে কিছুই জানেন না বলে সংবাদমাধ্যমকে জানান। তবে পোস্টারের নিচে নাম থাকা কমিটির পদাধিকাররা কোনও মন্তব্য করেন নি।

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।