ফরাক্কায় পাওনা বেতনের দাবিতে ধর্মঘট মাঝিদের, দুর্ভোগ যাত্রীদের

এনএফবি, মুর্শিদাবাদঃ

প্রায় ৮ মাস ধরে বেতন না পাওয়ার জন্য কাজ বন্ধ করল মাঝিরা ৷ ঘটনাটি ঘটেছে মুর্শিদাবাদের ফরাক্কার বেওয়া ১ পঞ্চায়েতের অন্তর্গত ডিয়ারফরেস্ট এলাকার নৌকোঘাটে ।

ফরাক্কার ডিয়ারফরেস্ট নৌকো ঘাটের মাঝিদের বক্তব্য, প্রায় ১৪ বছর ধরে প্রথমে ২জন মাঝি দিয়ে ফরাক্কার এই ডিয়ারফরেস্ট নৌকো ঘাটের নৌকো চালানো হতো ৷ তখন প্রশাসনের তরফ থেকে ঠিকঠাক বেতন দিতো ৷ তারপর প্রায় গত দুই বছর আগে এই ডিয়ারফরেস্ট নৌকো ঘাটে আরও ২জন মাঝি বাড়ানো হয় ৷ এখন মোট ৪ জন মাঝির বেতন গত ৮ মাস ধরে না দেওয়ায় শুক্রবার সকাল থেকে নৌকো চালানো বন্ধ রেখে প্রতিবাদে নামে তারা ।

ফরাক্কার ডিয়ারফরেস্ট এলাকার মাঝিদের বক্তব্য, ৮ মাসের বেতনের সমস্যার জন্য স্থানীয় পঞ্চায়েত, বিডিওকে জানানো হলেও কোনো সুরাহা হয় নি ৷ তাই বাধ্য হয়ে ফরাক্কার ডিয়ারফরেস্ট এলাকার মাঝিরা কাজ বন্ধ করেছে ৷ তাদের দাবি ,প্রশাসনের তরফ থেকে যতক্ষণ না তাদের ৮ মাসের বেতনের সুরাহা হবে, ততক্ষণ তারা কাজে যোগদান করবে না ৷

রাকেশ সেন, স্থানীয় বাসিন্দা ৷ নিজস্ব চিত্র

শুক্রবার সকাল থেকে ফরাক্কার ডিয়ারফরেস্ট নৌকো ঘাটে নৌকো পারাপার বন্ধ থাকায় আটকিয়ে পড়েছে একটি প্রাইভেট কোম্পানির লঞ্চ। তাই সমস্যায় মধ্যে পড়তে হয়েছে স্থানীয় এলাকাবাসীদের ৷ স্থানীয় এলাকাবাসীরা জানান, ফরাক্কা বেওয়া ১ পঞ্চায়েতের অন্তর্গত ডিয়ারফরেস্ট, শিকারপুর, নিমতলা সহ অন্যান্য এলাকা মিলিয়ে প্রায় কয়েক হাজার পরিবারের প্রধান ভরসা এই ফরাক্কার ডিয়ারফরেস্ট নৌকো ঘাট ৷ বিকল্প একটি রাস্তা থাকলেও সেই রাস্তার অবস্থাও বেহাল ৷ ফলে স্কুল, কলেজ,হসপিটাল,বাজার সহ অন্যান্য কাজের জন্য এই নৌকোঘাটই ব্যবহার করতে হয় তাদের ৷ তাই ফরাক্কার ডিয়ারফরেস্ট নৌকো ঘাটে মাঝি অবশ্যই দরকার, এই ঘাটে মাঝি না থাকলে নৌকা পারাপারের সময় ঘটে যেতে পারে দুর্ঘটনা। এই মাঝিরা কাজ বন্ধ করায় প্রায় ঘন্টা খানেক আটকে পড়ে ভ্যাকসিন নিতে যাওয়া এক ব্যক্তি।

তাই সকলেই চাইছে প্রশাসনের তরফ থেকে দ্রুত মাঝিদের পাওনা মিটিয়ে দেওয়া হোক ৷ যাতে অতি শীঘ্র তারা কাজে যোগদান করতে পারে ৷


খবরটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করুন

নিউজফ্রন্ট বাংলার এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 95936 66485

Leave a Reply

Your email address will not be published.