নর্থইস্টের বিরুদ্ধে অরিন্দমকে প্রথম এগারোয় রাখার ইঙ্গিত লাল-হলুদ কোচ দিয়াজের

অঞ্জন চ্যাটার্জী, এনএফবিঃ

তাঁর দলে একাধিক ফুটবলারের চোট থাকলেও সুখবর যে, দলের অধিনায়ক ও গোলকিপার অরিন্দম ভট্টাচার্য সুস্থ হয়ে উঠেছে। বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠকে এসসি ইস্টবেঙ্গলের স্প্যানিশ কোচ হোসে মানুয়েল দিয়াজ সে রকমই জানালেন। এই ম্যাচে প্রথম জয়ের কথা ভেবেই যে দল নামাবেন, সে কথা জানাতেও ভুললেন না তিনি। লিগ টেবলে দশ নম্বরে থাকা নর্থইস্ট ইউনাইটেড এফসি-র বিরুদ্ধে মাঠে নামার আগে আর কী বললেন তিনি? জেনে নেওয়া যাক।

আপনারা অল্পের জন্য ম্যাচ হেরেছেন, ড্র-ও করেছেন। নর্থইস্ট ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে কি জিততে পারবেন?

উত্তরঃ আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি। দলের ছেলেদের মানসিকতা যথেষ্ট ভাল। বিপক্ষের প্রতি শ্রদ্ধাও আছে। এর আগেই আমরা জিততে পারতাম। কিন্তু সুযোগগুলোকে কাজে লাগাতে পারিনি।

জ্যাকিচন্দ ও অরিন্দমের চোটের কী অবস্থা? অন্যদের চোটই বা কী অবস্থায়?

উত্তরঃ জ্যাকিচন্দ দলের সঙ্গে অনুশীলন করতে পারছে না। তবে অরিন্দম দলের সঙ্গে অনুশীলন করছে। ওর কাল খেলার সম্ভাবনা আছে। ড্যারেন (সিডোল) ক্রমশ সুস্থ হয়ে উঠছে। আর কারও চোট নেই।

দলের খেলোয়াড়দের শারীরিক ও মানসিক অবস্থা সম্পর্কে কী বলবেন?

উত্তরঃ সমস্যাটা শুধু শারীরিক দিক থেকে নয়, দলের সব কিছু নিয়েই ভাবতে হচ্ছে। কৌশল, টেকনিকের সঙ্গে শারীরিক দিকও। অনেক কিছু নিয়ে সমস্যা রয়েছে। আমরা প্রাক-মরশুম প্রস্তুতি শুরু করেছি দেরিতে। সেই কারণেই শারীরিক অবস্থা এই জায়গায় দাঁড়িয়ে।

আপনারা এখন লিগ টেবলের একেবারে নীচে। এই অবস্থায় নর্থইস্টের বিরুদ্ধে নামার আগে দলের ছেলেদের চাঙ্গা করছেন কী ভাবে?

উত্তরঃ আমরা চেষ্টা করছি, যাতে ছেলেরা মানসিক ভাবে চাঙ্গা থাকে। কাজটা খুবই কঠিন। এখন প্রতিটি ম্যাচ আমাদের কাছে চ্যালেঞ্জ।

নর্থইস্ট ইউনাইটেডও সম্প্রতি ভাল খেলেনি। ওদের বিরুদ্ধে কি শুরু থেকেই আক্রমণে যাবেন?

উত্তরঃ আমাদের নিজেদের শক্তি অনুযায়ী এগোতে হবে। ম্যাচ চলাকালীন বেশি ভুল করলে চলবে না। ভুলে গেলে চলবে না, ওরা গত মরশুমে সেরা চারের মধ্যে ছিল। এ বছর ওদের শুরুটা ভাল হয়নি। কালকের ম্যাচটা সমানে সমানে লড়াই হতে পারে।

আপনাদের একাধিক গোল এসেছে লম্বা থ্রোয়ে, যেটা সাধারণত রাজু গায়কোয়াড় ভাল করে থাকেন। এই লম্বা থ্রো আপনাদের আক্রমণে গুরুত্বপূর্ণ অস্ত্র হয়ে উঠল কেন?

উত্তরঃ সত্যিই আমাদের কাছে এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কারণ, আমাদের ফুটবলাররা এই ব্যাপারটা খুব ভাল পারে। পেশাদার দলগুলো এগুলো করে থাকে। তবে সঙ্ঘবদ্ধ থাকা, বিপক্ষকে চাপে রাখা বেশি দরকার। আক্রমণে ওঠাও খুব জরুরি।

এই লম্বা থ্রো কি আপনাদের সেটপিস অনুশীলনে অঙ্গ?

উত্তরঃ শুধু লম্বা থ্রোয়ে নয়, নানা উপায়েই গোল পেয়েছি আমরা। সেট পিসে আমরা অন্যান্য অনুশীলনও করে থাকি।

কাল কি আদিল খানকে শুরু থেকে দেখা যেতে পারে?

উত্তরঃ চূড়ান্ত দল বাছাইয়ের জন্য ম্যাচের আগের মুহূর্ত পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে আমাদের। তবে ওকে খেলাতে পারি।

আপনার দলের বিদেশি বাছাই নিয়ে কি আপনি উদ্বিগ্ন?

উত্তরঃ আমরা ন’গোল করেছি। এর মধ্যে বিদেশি ফুটবলাররা আট গোল দিয়েছে। ওদের নিয়ে আমি খুশি। তবে এটাই ওদের স্বাভাবিক পারফরম্যান্স।

Leave a Reply

Your email address will not be published.