বাকি পুরসভায় নির্বাচন কবে, হলফনামায় জানাল কমিশন

এনএফবি, নিউজডেস্কঃ

মেয়াদ উত্তীর্ণ রাজ্যের ১১৩ পুরসভায় আগামী বছর মে মাসের মধ্যে নির্বাচন করাতে চায় রাজ্য সরকার। বিজেপির করা মামলার পরিপ্রেক্ষিতে রাজ্য ও নির্বাচন কমিশনের ভাবনা জানতে চায় কলকাতা হাইকোর্ট। এদিন আদালতে হলফনামা জমা দিয়ে রাজ্য নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ভোটারদের সুরক্ষায় সেই নির্বাচনগুলি ছয় থেকে আট দফায় করাতে চায় রাজ্য সরকার। মে মাসের মধ্যে সেই ভোট করাতে চায় রাজ্য।

হলফনামায় এদিন নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে,“ বর্তমানে কমিশনের কাছে ১৫ হাজার ৬৮৭ টি ইভিএম আছে। তার মধ্যে কলকাতা পুরভোটে ৭ হাজার ২১০টি ইভিএম ব্যবহার করা হবে। নির্ধারিত দিনে গণনা না হলে হাতে থাকবে আরও ৮ হাজার ৪৭৭ টি ইভিএম।“ সেই কারণে কয়েক দফায় ভোট গণনা না হলে পরবর্তী ভোটের জন্য কমিশনের হাতে ইভিএম থাকবে না বলে জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য করোনা পরিস্থিতির জেরে রাজ্যের ১১৪ পুরসভার মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও নির্বাচন করানো সম্ভব হয়নি। পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসতেই শুধুমাত্র কলকাতা পুরসভার ভোটের নির্ঘন্ট প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন। আগামী ১৯ ডিসেম্বর কলকাতার ১৪৪টি আসনে পুরভোট হতে চলছে। তবে শুরু থেকেই পদ্ম শিবির রাজ্যের সব পুরসভায় একইসঙ্গে নির্বাচন চেয়ে মামলা করেছিল। গত সপ্তাহে সেই মামলার শুনানি হয়। কলকাতা পুরভোটের নির্ঘন্ট ঘোষণার পর বাকি পুরসভাতে কবে নির্বাচন হবে তা জানতে চান প্রধান বিচারপতি। রাজ্যের সঙ্গে আলোচনা করে বাকি পুরসভাগুলিতে নির্বাচনের সময়সূচী জানানো হবে বলে আদালতে জানায় কমিশন। সেই মতো চলে আলোচনা। সেই আলোচনার ভিত্তিতেই সোমবার কলকাতা হাইকোর্টে হলফনামা জমা দেয় রাজ্য নির্বাচন কমিশন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.