গোলের খরা কাটাতে ব্রাজিলিয়ান ভরসা লাল হলুদের

অঞ্জন চ্যাটার্জী, এনএফবিঃ

গোল ও জয়ের খরা দূর করতে এসসি ইস্টবেঙ্গল এবার ব্রাজিল থেকে নিয়ে আসছে তরুণ স্ট্রাইকার মার্সেলো রিবেইরো দো সান্তোসকে। সোমবার এই খবর জানিয়ে দেওয়া হল ক্লাবের পক্ষ থেকে।

পর্তুগালের প্রিমেইরা লিগায় গিল ভিসেন্তে এফসি-র হয়ে খেলেন মার্সেলো। সেখান থেকেই লোনে নিয়ে আসা হচ্ছে তাঁকে। এ পর্যন্ত দশটি ম্যাচে মাত্র এগারো গোল দিয়েছে এসসি ইস্টবেঙ্গল। খেয়েছে ১৯টি। যথার্থ স্কোরার বলতে সে রকম কেউ নেই।

ক্রোয়েশিয়ান ফরোয়ার্ড আন্তোনিও পেরোসেভিচকে গোলের সুযোগ তৈরি করা ও গোল করা দুটোই করতে হয়েছে। যার ফলে কোনওটাই ঠিকমতো করতে পারেননি তিনি। সেই পেরোসেভিচও পাঁচ ম্যাচের নির্বাসন কাটাচ্ছেন এখন। যে উদ্দেশ্যে নাইজেরিয়া থেকে ড্যানিয়েল চিমাকে নিয়ে আসা হয়েছিল, তার ছিটেফোঁটাও পূরণ করতে পারেননি তিনি। এমন সব গোলের সুযোগ নষ্ট করেছেন, যাকে অভাবনীয় বললেও বোধহয় কম বলা হবে। তাঁকে ছাড়পত্র দিয়ে এ বার মার্সেলোকে আনছে কলকাতার ক্লাব।

সেম্বয় হাওকিপ, আমির দার্ভিসেভিচরা পেরোসেভিচের মতো দু’টি করে গোল করলেও একেবারেই ধারাবাহিক নন। তাই এসসি ইস্টবেঙ্গলের প্রয়োজন একজন দুর্ধর্ষ স্ট্রাইকার, যিনি অন্তত দলকে কিছু ভাল গোল এনে দেবেন। অন্তর্বর্তী কোচ রেনেডি সিং দলের দায়িত্ব নেওয়ার পরে দলের রক্ষণকে অনেকটা সঙ্ঘবদ্ধ করলেও আক্রমণে তেমন কোনও খেলোয়াড়ই তাঁর হাতে নেই, যিনি দলকে ধারাবাহিক ভাবে গোল এনে দিতে পারেন।

পেরোসেভিচ নির্বাসন কাটিয়ে ফিরলে ও মার্সেলো দলে যোগ দিলে এই জুটি কিছু করতে পারে, আপাতত এই আশায় রয়েছেন এসসি ইস্টবেঙ্গল কর্তারা। তাই তাঁরা ব্রাজিল থেকে সেখানকার এই ২৪ বছর বয়সি স্ট্রাইকারকে নিয়ে আসছেন। গত বছর অগাস্টে গিল ভিসেন্তের হয়ে প্রথম মাঠে নামেন মার্সেলো। পর্তুগালের এই ক্লাবে যোগ দেওয়ার আগে তিনি খেলতেন স্পেনের বুর্গোস সিএফ ও সানসে-র হয়ে।

এসসি ইস্টবেঙ্গলের মতো ঐতিহ্যবাহী ক্লাবে যোগ দিতে পেরে খুশি মার্সেলো বলেন, “এসসি ইস্টবেঙ্গলে যোগ দিতে পেরে আমি খুশি। এটি ভারতের অন্যতম বড় ক্লাব। এইরকম একটা ক্লাবকে সাহায্য করতে পেরে খুশিই হব”। ক্লাবের চুক্তিপত্রে সইয়ের পরে এই কথাই বলেন মার্সেলো।

স্প্যানিশ কোচ হোসে মানুয়েল দিয়াজ দায়িত্ব ছেড়ে দেশে ফিরে যাওয়ার পরে ক্লাব দলের দায়িত্ব দিয়েছে আর এক প্রাক্তন স্প্যানিশ কোচ মারিও রিভেরাকে। কিন্তু কোয়ারান্টাইন পর্ব কাটিয়ে এখনও দলের দায়িত্ব নিতে পারেননি তিনি। অন্তর্বর্তী কোচ হিসেবে কাজ করছেন আপাতত। তিনি দায়িত্ব নেওয়ার পরে এখনও দল হারেনি। লিগ টেবলের প্রথম দুইয়ে থাকা দল মুম্বই সিটি এফসি-র বিরুদ্ধে গোলশূন্য ড্র করে তারা। এ বার মার্সেলো ও পেরোসেভিচ একত্র হলে দলের গোল সমস্যা মেটে কি না, সেটাই দেখার।


খবরটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করুন

নিউজফ্রন্ট বাংলার এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 95936 66485

Leave a Reply

Your email address will not be published.