দলের ড্রতে হতাশ জুয়ান

অঞ্জন চ্যাটার্জী, এনএফবিঃ

এটিকে মোহনবাগানের স্প্যানিশ কোচ জুয়ান ফেরান্দো তাঁর ক্লাবের ড্রয়ের থেকে এখন বেশি চিন্তিত দলের চোট-আঘাত সমস্যা নিয়ে। প্রায় প্রত্যেক জায়গায় কেউ না কেউ চোট পাচ্ছেন। এটাই বেশি চিন্তায় রেখেছে তাঁকে। তবে বুধবারের খেলায় দলের পারফরম্যান্সে তিনি খুশি। বুধবার রাতে ম্যাচের পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে যা বললেন।

দু’পয়েন্ট খুইয়ে আপনি কি হতাশ?

উত্তরঃ অবশ্যই হতাশ। তবে আমি বেশি ভাবছি চোট-আঘাত নিয়ে। টাঙরি, কার্ল, অমরিন্দরের চোট। অমরিন্দরের চোটটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

কার্ল ম্যাকহিউয়ের চোটের কিছু আপডেট আছে?

উত্তরঃ আমি ঠিক জানি না। কারণ, ওই পরিস্থিতিতে খুব ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম, ডাক্তারের সঙ্গে কথাও হয়নি।

রয় কৃষ্ণারও কি চোট রয়েছে? ওকে প্রথম এগারোয় রাখলেন না কেন?

উত্তরঃ না কোনও চোট নেই। এটা আসলে পরিকল্পনারই অঙ্গ। উইলিয়ামস যথেষ্ট পরিশ্রম করেছে। তবে রয়কে নিয়ে কোনও সমস্যা নেই। রয়ের ব্যাপারে আমি খুশি। ওর প্রতি যথেষ্ট শ্রদ্ধা আছে আমার। তবে আজকের পরিকল্পনায় উইলি-ই বেশি মানানসই ছিল। মনে হয় শেষ পর্যন্ত পরিকল্পনাটা ভালই ছিল।

আজকের পরে ডেভিডকে কি আরও ম্যাচে শুরু থেকে দেখা যাবে? তা হলে রয়কে কী ভাবে ব্যবহার করবেন?

উত্তরঃ জায়গা একটা খুঁজে নিতে হবে। তবে রয় কৃষ্ণা আজ নাম্বার টেন-এর মতো খেলেছে। তবে নাম্বার নাইনের জায়গাও আক্রমণের ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ব্যাপারটা অত সোজা নয়। কারণ, আমাদের দলে অনেকের চোট-আঘাত রয়েছে। দলের পরিস্থিতি সামলাতে গেলে এরকম সিদ্ধান্ত নিতেই হবে।

অমরিন্দর সিংয়ের সমস্যা নিয়ে কী বলবেন?

উত্তরঃ ও সমস্যায় পড়লে সাহায্য করতেই হবে। ওর সমস্যার গভীরে গিয়ে ওর সমাধান করার চেষ্টা করতে হবে। ও যাতে আরও উন্নতি করতে পারে, তা দেখতে হবে। এটাই একমাত্র সমস্যা সমাধানের রাস্তা।

চারটি হলুদ কার্ড দেখায় পরের ম্যাচে খেলতে পারবেন না হুগো বুমৌস। এটা কি সমস্যা বাড়াতে পারে?

উত্তরঃ হলুদ কার্ডকে কী করে ভাল বলি? এই নিয়ে কিছু বলতে চাই না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.