পার্কস্ট্রিট ভিড়ের সত্যি নিয়ে দুই সাংবাদিকের তরজা!

এনএফবি, নিউজ ডেস্কঃ

বড়দিনে পার্কস্ট্রিটে জনপ্লাবনের ভাইরাল হওয়া ছবি, ভিডিও নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনার ঝড় ওঠে। করোনার নয়া স্ট্রেইন ওমিক্রনের রক্তচক্ষুতে আতঙ্ক ছড়িয়েছে বিশ্বজুড়ে। ভারতেও এই নয়া প্রজাতি ধীরে ধীরে থাবা বিস্তার করছে সেখানে বিধি নিষেধের তোয়াক্কা না করে ২৫ ডিসেম্বর রাস্তায় নামে মানুষের ঢল।

পার্কস্ট্রিট জনপ্লাবনের সেই ছবি নিজের অ্যাকাউন্টে টুইট করে সর্বভারতীয় বৈদ্যুতিন সংবাদ মাধ্যমের সাংবাদিক পূজা মেহেতা কোভিডবিধি নিয়ে রাজ্য সরকারে শিথিলতার কারণে জনগনের গা ছাড়া ভাবের বিষয়টি তুলে ধরে, সেখানে অপর এক সর্বভারতীয় বৈদ্যুতিন সংবাদমাধ্যমের সাংবাদিক ইন্দ্রজিৎ সেই ছবিগুলোকে পুরানো বলে দাবি করেন। ইন্দ্রজিৎ লেখেন, “আমার মনে হয় এটা পুরোনো ছবি। ট্রাফিকের ফলে মেইন রাস্তার ওপর কাউকেই অ্যালাও করা হয়নি ৷ শুধু অ্যালেন পার্কের কাছেই একটু ভিড় ছিল৷ ” একই সঙ্গে তিনি প্রমাণ হিসাবে নিজে কিছু ছবি পোস্ট করেন। ইন্দ্রজিৎ দাবি করেন, পার্কস্ট্রিট সম্পর্কে মিথ্যা তথ্য পরিবেশন করার জন্যই নেটিজনরা এই পুরোনো ছবি শেয়ার করে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ছবির সত্যতা ঘিরে সাংবাদিকদের এই তরজায় পরে অন্য নেটিজেনদের অংশ নিতে দেখা যায়।

সেদিন পার্কস্ট্রিটে জনতার ঢল নেমেছিল তা রাজ্য এবং সর্বভারতীয় বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমেও দেখা গেছে। ২৫ ডিসেম্বর দুপুরের পর থেকে ভিড় ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে, সন্ধ্যা বেলায় তা জনপ্লাবনের রূপ নেয়। শুধু রাস্তায় নয়, রেস্টুরেন্টে আসন দখল নিয়েও একে অপরের সঙ্গে লড়াই করতে দেখা যায়। মহামারি পরিস্থিতিতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বারবার সতর্ক করা সত্ত্বেও মানুষ তাকে গুরুত্ব দেয়নি।

বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা এবং চিকিৎসকরা করোনার নয়া প্রজাতি নিয়ে যখন বারবার সতর্কবার্তা দিচ্ছেন, তখন জনতার এই উদাসীনতা ফের আর একবার ভয়াবহ পরিস্থিতির মুখোমুখি করতে পারে। সেখানে সচেতনতার পক্ষে ঐক্যবদ্ধ না হয়ে নেট মাধ্যমে দুই সাংবাদিকের এই তরজা সরকার পক্ষ এবং বিরোধী পক্ষের রূপ নেওয়ায় বিস্মিত সংশ্লিষ্ট মহল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.