মিশনারিজ অফ চ্যারিটির আবেদনেই অ্যাকাউন্ট বন্ধ, দাবি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের

এনএফবি, নিউজ ডেস্কঃ

মিশনারিজ অফ চ্যারিটির ব্যাংক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে। দাবানলের মতো এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই ঘটনার প্রতিবাদে টুইটারে সরব হন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং সিপিএম নেতা সূর্যকান্ত মিশ্রও।

যদিও এই খবরের সত্যতা নিয়ে কলকাতার মাদার হাউজ বা মিশনারিজ অফ চ্যারিটি কোনও মন্তব্য করেনি। তবে মুখ্যমন্ত্রীর ট্যুইট ঘিরে খবরের সত্যতা নিয়ে চলছিল জল্পনা।

এদিন টুইটে মুখ্যমন্ত্রী লেখেন, “বড় দিনের আবহে মিশনারিজ অফ চ্যারিটির সব ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে কেন্দ্র। এই খবর শুনে আমি স্তম্ভিত। ওদের ২২ হাজার কর্মী এবং রোগী খাবার এবং ওষুধ ছাড়া দিন কাটাচ্ছেন। আইন সবার ঊর্ধ্বে হলেও, মানবিক কাজ বন্ধ রাখা উচিত নয়।”

সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র শকিং নিউজ আখ্যা দিয়ে ঘটনার প্রতিবাদে টুইট করেন।

১৯৫০ সালে মানবিক কাজকে সামনে রেখে খোদ মাদার টেরেজা মিশনারিজ অফ চ্যারিটি স্থাপন করেন। তারপর থেকে কলকাতার এই সংস্থাই হয়ে ওঠে নোবেলজয়ী মাদারের ধ্যানজ্ঞান। দেশ-সহ বিশ্বের নানা প্রান্তে ছড়িয়ে মিশনারিজ অফ চ্যারিটির শাখা। এমন এক সংস্থার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট সরকারি নির্দেশে ফ্রিজ হয়ে যাওয়ায় স্পষ্টতই বিতর্ক বেড়েছে।

বিভিন্ন মহলের সমালোচনার ঢেউ আছড়ে পড়তেই বিবৃতি জারি করে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক দাবি করেছে, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করেনি কেন্দ্র। স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার তরফে জানানো হয়েছে যে মিশনারিজ অফ চ্যারিটির তরফেই নিজেদের সমস্ত অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করার আর্জি জানানো হয়েছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.