পাঁশকুড়ায় নতুন পুলিশ ফাঁড়ির সূচনা

এনএফবি,পূর্ব মেদিনীপুরঃ

পাঁশকুড়ার মাইশোরা এলাকা পশ্চিম মেদিনীপুরের ডেবরা এবং ঘাটালের এক প্রকার সংযোগস্থল ৷ এখানে দীর্ঘদিন ধরে নানান অসামাজিক কাজকর্ম হয়ে আসছে ৷ ছিনতাই, খুনের মতো ঘটনা দীর্ঘ বছর ধরেই ঘটে চলেছে। এমন কি ওই এলাকায় ২০০৯ সালে দলীয় কার্যালয়ে আততায়ীদের গুলিতে খুন হতে হয়েছিল তৎকালীন পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি কুরবান আলী শা কে। সেই ক্ষেত্রে পাঁশকুড়া মূল থানা থেকে মাইশোরা এলাকার দূরত্ব অনেকটাই ৷ হঠাৎ করে কোনো কারণে ঘটনা ঘটলে বা কেউ কেস করতে চাইলে অনেকটা পথ যেতে হয় মাইশোরা এলাকা থেকে।

নিজস্ব চিত্র

আর সে কথা মাথায় রেখেই ওই এলাকায় পুলিশ ফাঁড়ি তৈরি করার কথা ভাবেন পাঁশকুড়া থানার আই সি আশীষ মজুমদার। সেই মতোই মাইশোরা এলাকায় পুলিশ ফাঁড়ি উদ্বোধন করেন পুলিশ সুপার অমরনাথ কে। উপস্থিত ছিলেন অ্যাডিশেনাল এসপি এম এম হাসান,পাঁশকুড়া থানার আই সি আশীষ মজুমদার। মাইশোরা এলাকায় নতুন পুলিশ ফাঁড়ি তৈরি হওয়ায় খুশি এলাকাবাসী। অনেক বেআইনি কাজকর্ম, অপরাধ মূলক কাজ বন্ধ হবে। নতুন করে সেজে উঠবে মাইশোরা। ওই এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে ছিনতাই, খুনের মতো বিভিন্ন ধরণের অপরাধ মূলক কর্মকাণ্ড হয়ে আসছে ৷ এবার তা এক প্রকার বন্ধ হবে বলে মনে করছেন স্থানীয় মানুষ জন। এমনকি তাঁর পাশাপাশি পাবলিক পুলিশ রিলেশন গড়ে উঠবে মাইশোরা এলাকায়। আগামী দিনে ওই ফাঁড়ি যাতে বড় পুলিশ থানা তৈরি হয় তা চেষ্টা করবে বলে আশ্বাস দেন পূর্ব মেদিনীপুর পুলিশ সুপার অমরনাথ কে। মাইশোরা এলাকায় বর্তমান যে পুলিশ ফাঁড়ি তৈরি করা হয়ে ছিল তা এতদিন অব্যবহৃত জায়গা হয়ে পড়েছিল, পাঁশকুড়া থানার আই সি আশীষ মজুমদারের উদ্যোগে এই ফাঁড়ির ব্যবস্থা করা হয়।

পাশাপাশি এদিন শিশু হেল্প ডেস্ক উদ্বোধন হয় পাঁশকুড়া থানায়। যেখানে অপরাধী অপ্রাপ্তবয়স্ক মহিলাদের জন্য সংরক্ষিত করা হয়েছে নতুন রুম ৷ যেখানে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে ৷ এক্ষেত্রে তাদের অন্যান্য অপরাধীদের থেকে দূরে রাখা হবে বলেও জানা গেছে।

নিউজ ফ্রন্ট বাংলার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।